সুনামগঞ্জ-সিলেট বাইপাস সড়কে পরিবহন থেকে চাঁদা আদায়ের অভিযোগে সুনামগঞ্জে চলছে অনির্দিষ্টকালের বাস ধর্মঘট। জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের ডাকা ধর্মঘট রোববার ভোর ছয়টা থেকে শুরু হয়েছে।

বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, সুনামগঞ্জের উদ্দেশে আসা দূরপাল্লার বাসগুলো যাত্রীদের নামিয়ে দিয়ে বাস টার্মিনালে নিয়ে পার্কিং করছেন চালকরা। সকাল থেকে জেলা থেকে কোনো যাত্রীবাহী বাসও ছেড়ে যায়নি। এ কারণে সুনামগঞ্জ-ঢাকা, সুনামগঞ্জ-কুমিল্লা, সুনামগঞ্জ-ময়মনসিংহসহ দুরপাল্লার যাত্রীরা বিপদে পড়েছেন। সারাদেশ থেকে আসা পর্যটকরাও বেকায়দায় পড়েছেন।

জেলা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নূরুল হক বলেন, সুনামগঞ্জ থেকে ছেড়ে যাওয়া আন্তঃজেলা বাসগুলো সিলেটের বাইপাস সড়কে গেলেই চাঁদাবাজির শিকার হয়। ১ সেপ্টেম্বর থেকে এই পরিস্থতির সৃষ্টি হয়েছে। চাঁদাবাজি ঠেকাতে সিলেটের শ্রমিক নেতৃবৃন্দ, আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে নালিশ করায় তারা আরও বেপরোয়া হয়েছে। শ্রমিকদের মারধরও করেছে তারা। এই অবস্থায় পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত আছে।

সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো মিজানুর রহমান বলেন, সিলেটের পথে চাঁদাবাজি বন্ধে পুলিশ ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে। ঘর্মঘটের বিষয়ে আমরা সুনামগঞ্জের শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছি, তারা নিজেরা বসে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছেন।