আক্কেলপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও আক্কেলপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র ছিলেন গোলাম মাহফুজ চৌধুরী অবসর। এবার তিনি জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের নতুন কমিটিতে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদ পেয়েছেন। তাই আক্কেলপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজ ও সোনামুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে শনিবার দুপুরে তাকে দেওয়া হয় সংবর্ধনা।

আক্কেলপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজে গিয়ে দেখা যায়, দুপুরের দিকে কলেজের মেইন গেট থেকে ভেতরে প্রশাসনিক ভবন পর্যন্ত দু'পাশে শিক্ষার্থীরা ডালাভর্তি ফুল নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। এরই মধ্যে গোলাম মাহফুজ চৌধুরী ব্যক্তিগত গাড়িতে কলেজে আসেন। অধ্যক্ষ, শিক্ষকরা তাকে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। আর দু'পাশে দাঁড়িয়ে থাকা শিক্ষার্থীরা ফুল ছিটিয়ে বরণ করে তাকে। পরে কলেজের হলরুমে আলোচনা সভা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন কলেজের অধ্যক্ষ আতিকুর রহমান। একইভাবে সোনামুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের হলরুমেও তাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। তবে কলেজের কোনো কমিটিতে না থাকার পরও কেন তাকে সংবর্ধনা দেওয়া হলো- এ বিয়য়ে কোনো মন্তব্য করেননি অধ্যক্ষ আতিকুর রহমান।

সোনামুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহমান বলেন, গোলাম মাহফুজ চৌধুরী অবসর এই বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি। তাই আমরা বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দিয়েছি।

আক্কেলপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মকবুল হোসেন বলেন, শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে কোনো নেতা, এমপি এমনকি মন্ত্রিরাও এ ধরনের কাজ করাতে পারেন না। যদি শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে থাকে, তবে এর দায় অধ্যক্ষকেই নিতে হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাহফুজ চৌধুরী অবসর বলেন, আক্কেলপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজ এবং সোনামুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক/শিক্ষার্থীরা আমাকে সংবর্ধনা দিয়েছেন। যারা আমাকে ভালোবাসে তারা সংবর্ধনা দিতেই পারেন। এতে দোষের কী আছে?\হউপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম হাবিবুল হাসান বলেন, অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।