কক্সবাজারে রোহিঙ্গা নেতা মোহাম্মদ মুহিবুল্লাহকে হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মো. সেলিম ওরফে লম্বা সেলিম (২৭) নামে একজনকে আটকের কথা জানিয়েছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন। শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে উখিয়া ক্যাম্প-৭ এ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। ১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নাইমুল হক সমকালকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি বলেন, উখিয়া ক্যাম্প-৭ এ অভিযান চালিয়ে মো. সেলিম ওরফে লম্বা সেলিম (২৭) নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। তাকে উখিয়া থানায় হস্তান্তরের প্রস্তুতি চলছে। এর আগে মুহিবুল্লাহকে হত্যার ঘটনায় উখিয়া থানায় মামলা হয়। বৃহস্পতিবার রাতে উখিয়া থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন নিহত মুহিবুল্লাহর ছোট ভাই হাবিবুল্লাহ। তবে সেখানে আসামির কোনো সংখ্যা উল্লেখ করা হয়নি।

৪৮ বছর বয়সী মুহিবুল্লাহ আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি পিস ফর হিউম্যান রাইটস নামে একটি সংগঠনের চেয়ারম্যান ছিলেন। বুধবার রাতে লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের মংডুর এলাকার স্কুলশিক্ষক মুহিবুল্লাহ পশ্চিমা সংবাদ মাধ্যমে ‘রোহিঙ্গাদের কণ্ঠস্বর’ হিসেবে বিবেচিত ছিলেন।

২০১৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করে আলোচনায় আসেন তিনি। জেনিভায় জাতিসংঘ মানবাধিকার সংস্থায় রোহিঙ্গাদের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন তিনি।

মুহিবুল্লাহকে হত্যার ঘটনা আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে। জাতিসংঘ, ইউএনএইচসিআর, যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো দ্রুত তদন্ত করে দোষীদের বিচারের আওতায় আনতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।