বকশীগঞ্জ উপজেলার ভারতীয় সীমান্তবর্তী ধানুয়া কামালপুর ইউনিয়নের ডুমুরতলায় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসিন্দা বৃদ্ধা ছামিরন নেছা (৫৫) নিজ বসত ঘরে খুন হয়েছেন। 

বৃহস্পতিবার রাতে দুর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে ও গলাকেটে হত্যা করে। খবর পেয়ে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ক্ষতবিক্ষত বিধবা ছামিরনের লাশ উদ্ধার করে বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ। শুক্রবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ছামিরন মৃত নেহাল মিয়ার স্ত্রী। 

ছামিরনের ভাই ফুল বকস ওরফে ফুল বাসর জানান, আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে একাই থাকতেন তার বোন। জমিসংক্রান্ত বিরোধ ও পূর্ব শত্রুতার জেরেই তাকে খুন করা হয়েছে বলে তার দাবি।   

এ ব্যাপারে বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম সম্রাট জানান, ছামিরন নেছার শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এক বা একাধিক ব্যক্তি এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে। লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।