গাজীপুরে দু'টি পোশাক কারখানা বন্ধ ঘোষণার প্রতিবাদে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বাসন সড়ক ও ভোগড়া এলাকায় অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন কয়েক হাজার শ্রমিক।

শ্রমিকদের অভিযোগ, শনিবার রাত পর্যন্ত কাজ শেষ করে তারা বাসায় ফিরে যান। রোববার সকালে ইন্টারলিংক অ্যাপারেলস লিমিটেড কারখানার সামনে আসলে প্রধান ফটকে কারখানা বন্ধ ঘোষণার নোটিশ দেখতে পান। এতে কারখানার সহস্রাধিক শ্রমিক উত্তেজিত ও বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। তারা বিক্ষোভ মিছিল করে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নেন এবং সড়ক অবরোধ করেন।

সড়ক অবরোধের কারণে সড়কের উভয় পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। দুর্ভোগে পড়েছেন হাজার হাজার যাত্রী।

শ্রমিকরা জানান, তাদের কিছু না জানিয়েই কর্তৃপক্ষ কারখানা বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে। তাদের গত সেপ্টেম্বর মাসের বেতন পরিশোধের কথা ছিল। এ সময় তারা কারখানা খোলা এবং বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবি করেন।

এদিকে ভোগড়া এলাকায় একই মালিকানাধীন অপর একটি কারখানার শ্রমিকরাও তাদের কারখানার প্রধান ফটকে কারখানা বন্ধ ঘোষণার নোটিশ দেখতে পেয়ে বিক্ষোভ করে সড়ক অবরোধ করে রাখেন। ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধের ফলে ঢাকার সঙ্গে উত্তরাঞ্চলের সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার জাকির হাসান জানান, কারখানা কর্তৃপক্ষ এবং শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছ। কারখানা কর্তৃপক্ষ তাদের নোটিশে উল্লেখ করেছে, করোনা মহামারির কারণে তাদের কারখানা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং কারখানাটি চালানোর জন্য তাদের সামর্থ্য নেই। তাই আইন মোতাবেক কারখানা বন্ধের ঘোষণা করা হয়েছে।