ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এসএসসি পরীক্ষার্থী এক স্কুলছাত্রীকে ফিল্মি কায়দায় প্রাইভেটকারে উঠিয়ে অপহরণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। পুলিশ ইতিমধ্যেই অপহরণের শিকার ওই স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার এবং ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে কাউছার মিয়া (৩২) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। সোমবার দুপুরে এই ঘটনায় ওই স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন। 

স্কুলছাত্রীর পরিবার ও থানা সূত্রে জানা গেছে, ওই স্কুলছাত্রীর গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার মজলিশপুর ইউনিয়নের মৈন্দ গ্রামে। কিন্তু পরিবারের সঙ্গে সে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের মধ্যপাড়ার একটি ভাড়া বাসায় থাকে। স্কুলে আসা যাওয়ার পথে দীর্ঘদিন ধরে মৈন্দ গ্রামের ধন মিয়ার ছেলে জসিম উদ্দিন (২৫) তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। স্কুলছাত্রীটি বারবার প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। এর মধ্যে মহামারীর কারণে স্কুল দীর্ঘদিন বন্ধ থাকে। 

সম্প্রতি স্কুল খুললে জসিম পুনরায় তাকে উত্যক্ত শুরু করে। এক পর্যায়ে তাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। বিষয়টি তরুণী তার পরিবারকে জানালে তারা জসিমের এক আত্মীয়ের কাছে নালিশ দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জসিম তার সহযোগীদের নিয়ে ওঁৎ পেতে থাকে। গত শনিবার দুপুরে ওই স্কুলছাত্রী শহরের বাসা থেকে বের হয়ে কিছুদুর যাওয়ার পর তাকে জোরপূর্বক একটি প্রাইভেটকারে তুলে নেয় তারা। রাস্তার পাশের একটি বাসার সিসিটিভি ক্যামেরায় পুরো বিষয়টি ধরে পড়ে।

রাতের বেলা ওই স্কুলছাত্রী বাসায় ফিরে পরিবারকে জানায়, জসিম তার সহযোগীদের নিয়ে প্রাইভেটকারে করে তাকে অপহরণ করে। পরে সারাদিন বিভিন্ন স্থানে ঘোরাফেরা করে সন্ধ্যার দিকে সদর উপজেলার সুহিলপুর এলাকায় তাকে নামিয়ে দিয়ে চলে যায়। পরে রাতেই তার মা বাদী হয়ে জসিমসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ গত রোববার রাতে অপহরণে জড়িত থাকার অপরাধে জসিমের বড় ভাই কাউছার মিয়াকে গ্রেপ্তার করে। সোমবার দুপুরে পুলিশ ওই স্কুলছাত্রীর মায়ের দায়েরকৃত অভিযোগটি মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে। 

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম বলেন, অপহরণের ঘটনায় স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে পাঁচ জনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করেছেন। ইতিমধ্যেই আমরা কাউছার নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছি। মূল আসামিসহ বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।




ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ফিল্মি স্টাইলে স্কুলছাত্রীকে উঠিয়ে নিল এক যুবক। জেলা পুলিশের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি দ্রুত বকাটে ছেলে গুলোকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হোক।

Posted by Sumon Sumon on Sunday, October 10, 2021