গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) এক শিক্ষক বাসচাপায় নিহত হয়েছেন।

বুধবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে ঢাকা-পিরোজপুর মহাসড়কে পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার কবিরাজবাড়ি নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত কাজী মসিউর রহমান (৩৪) বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। তিনি পিরোজপুর শহরের শেখপাড়া এলাকার কাজী মজিবর রহমানের ছেলে।

দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন ওই শিক্ষকের স্ত্রী- শিফাত আরা মৌ ও ছেলে কাজী মন্ময় (৭) । তারা  খুলনার গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

কাজী মসিউর রহমানের মৃত্যুতে গোপালগঞ্জ বশেমুরবিপ্রবিতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা তার আকস্মিক মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তারা পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

কাজী মসিউর রহমানের নিকট আত্মীয় পপি বলেন, স্ত্রী এবং ছেলেকে নিয়ে ভ্যানে করে গোপালগঞ্জ যাচ্ছিলেন তিনি। এসময় ইমাদ পরিবহনের একটি বাস তাদের ভ্যানকে চাপা দেয়। এতে গুরুতর আহত অবস্থায় কাজী মসিউর রহমানকে প্রথম পিরোজপুর হাসপাতাল ও পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এছাড়া তার স্ত্রী ও সন্তানকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে খুলনার গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

নাজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আশরাফুজ্জামান বলেন, আহত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষককে  পিরোজপুর থেকে খুলনা নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। ঘাতক বাসটিকে জব্দ করা হয়েছে। তবে ড্রাইভার পলাতক রয়েছে। তাকে আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। রাতে খুলনা মেডিকেল থেকে ওই শিক্ষকের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. রাজিউর রহমান ওই শিক্ষকের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে বলেন, কাজী মসিউর রহমানের মরদেহ রাত ১০টার পর নিজ বাড়ি পিরোজপুরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তার মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত। শোক সন্তোপ্ত পরিবারে প্রতি গভীর শোক ও সমবেদনা জানাচ্ছি।