পাবনার ঈশ্বরদীতে প্রকাশ্যে মো. শাহীন নামে এক যুবলীগ নেতাকে গুলি করেছে তিন মোটর সাইকেল আরোহী দুর্বৃত্ত। শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে শহরের আলহাজ্ব টেক্সটাইল মিলস উচ্চ বিদ্যালয়ের কাছে বাঁশের হাটের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

শাহীন ঈশ্বরদী পৌর যুবলীগের ৯নং ওয়ার্ড শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক এবং ঈশ্বরদী পৌর ইস্তা এলাকার আব্দুর রশিদের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সন্ধ্যা সাতটার দিকে আলহাজ্ব মোড়ের বাঁশহাটের সামনে রমজানের সার্ভিসিং সেন্টারের সামনে বসে ছিলেন শাহীন। এ সময় তিনজন একটি মোটরসাইকেলে এসে শাহীনকে পরপর তিন রাউন্ড গুলি ছোড়ে। গুলি শাহীনের বুকে ও হাতে লেগে সেখানেই লুটিয়ে পড়ে সে। বিকট শব্দে তাৎক্ষণিকভাবে সেখানে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আশেপাশের দোকানপাট বন্ধ করে দেয় ব্যবসায়ীরা। মোটরসাইকেল আরোহীরা গুলি করে দ্রুত স্থান ত্যাগ করলে স্থানীয়রা শাহীনকে উদ্ধার করে প্রথমে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শফিকুল ইসলাম শামীম বলেন, শাহীনে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আমাদের কাছে আনা হয়। তখন তিনি অজ্ঞান ছিলেন। তার অবস্থা অবনতির আশঙ্কায় আমরা উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল রেফার্ড করেছি।

এ ঘটনায় ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। সেখান থেকে ৩ রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে।

ঈশ্বরদী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শিরহান শরীফ তমাল বলেন, ৪-৫ জনের নাম উল্লেখ করে ঈশ্বরদী থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

পৌর যুবলীগের সভাপতি আলাউদ্দিন বিপ্লব বলেন, যুবলীগ নেতা শাহীনকে যারা গুলি করেছে তাদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করছি।