সিলেটে চাঞ্চল্যকর ছাত্রলীগ কর্মী কাজী হাবিবুর রহমান হাবিব হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ১১ জন আসামির সবাইকে খালাস দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেট মহানগরের অতিরিক্ত দায়রা জজ মুমিনুন নেসার আদালত এ রায় দেন। হাবিব এসআইইউর বিবিএ চতুর্থ বর্ষের ছাত্র ও কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের রানীঘাট গ্রামের কাজী সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে।

খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- ছাত্রলীগ নেতা হোসাইন মোহাম্মদ সাগর, ইলিয়াছ আহমদ পুনম, ইমরান খান, সুবায়ের আহমদ সুহেল, ময়নুল ইসলাম রুমেল, তুহিন আহমদ, নাহিদ হাসান, আওয়াল আহমদ সোহান, আশিক, সায়মন ও নয়ন।

মহানগর দায়রা জজ আদালতের এপিপি অ্যাডভোকেট জুবায়ের জানান, আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আদালত তাদের বেকসুর খালাস দেন। বৃহস্পতিবার রায়ের সময় অভিযুক্তদের মধ্যে ৮ জন আদালতে হাজির ও বাকি ৩ জন পলাতক ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের ১৯ জানুয়ারি দুপুরে নগরীর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটির (এসআইইউ) ফটকে ছাত্রলীগ কর্মী হাবিবের উপর হামলা হয়। সেই হামলায় হাবিবের ডান পা ও হাত কুপিয়ে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে তাকে এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে নগরীর বেসরকারি একটি হাসপাতালে তাকে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে রাত পৌনে ১২ টার দিকে হাবিবের মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় হাবিবের ভাই কাজী জাকির হোসেন বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় ১১ জনকে আসামি করে মামলা করেন। দীর্ঘ বিচারে প্রক্রিয়া শেষে আদালত এ রায় দেন। আদালতে আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট আব্দুর রহমান আফজাল ও অ্যাডভোকেট সুহেল আহমদ।