বিয়ের কথা বলে সিলেটের বিশ্বনাথে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে রাসেল আহমদ (২৮) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। সে উপজেলার পুরান সিরাজপুর গ্রামের বাসিন্দা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে বুধবার রাতে পৌর শহরের কারিকোনা গ্রামের ওই গৃহবধূ রাসেলের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। মামলায় রাসেলের সহযোগী হিমিদপুরের মিজান, মাসুমসহ আরও এক যুবককে আসামি করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, তিন বছর আগে উপজেলার পুরানগাঁওয়ের এক যুবকের সঙ্গে ওই গৃহবধূর বিয়ে হয়। তাদের দুই বছর বয়সী একটি ছেলেও রয়েছে। সিলেটের জাফলংয়ে স্বামীর চাকরির টাকায় ওই গৃহবধূ বিশ্বনাথ নতুন বাজারের টিএনটি রোডে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন। বিশ্বনাথ পুরানবাজারের আল-হেরা মার্কেটে মোবাইল মেরামত করতে গিয়ে রাসেলের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। 

একপর্যায়ে ওই গৃহবধূকে বিয়ের কথা বলে বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করে রাসেল। বিষয়টি জানতে পেরে তার স্বামী তাকে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেন।

বিশ্বনাথ থানার ওসি গাজী আতাউর রহমান বলেন, গৃহবধূর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মামলাসহ আসামি রাসেলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং বাকি আসামিদের গ্রেপ্তার চেষ্টা চলছে।