নাটোর সদর হাসপাতালে জনি নামে এক যুবকের মরদেহ রেখে পালিয়ে গেছেন উদ্ধারকারীরা। বুধবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। জনি রাজশাহী জেলার চারঘাট উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের মনসুর আলীর ছেলে।

নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনছুর রহমান জানান, ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সদর উপজেলার সৈয়দের মোড় এলাকা থেকে ৪-৫ জন ব্যক্তি একজন রোগীকে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করতে আসেন। এ সময় জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই যুবককে পরীক্ষা করে তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ কথা শুনে ওই যুবকের মরদেহ রেখে পালিয়ে যায় উদ্ধারকারীরা। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

ওসি বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ট্রাকের ওপর থেকে গাছের ডালের আঘাত লেগে নিচে পড়ে গিয়ে আহত হয় ওই যুবক। তাকে পড়ে থাকতে দেখে উদ্ধারকারী যুবকরা নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে তাকে ভর্তি করতে নিয়ে আসেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করলে যুবকরা ঝামেলা এড়াতে পালিয়ে যায়। তবে মরদেহ ময়নাতদন্ত করার পর জানা যাবে তার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ।