সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে একটি ভোটকেন্দ্র থেকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার তিন দিন পর এক বস্তা ব্যালট পেপার উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল শনিবার উপজেলার চান্দাইকোনা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের পাড় কোদলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে এগুলো উদ্ধার করে পুলিশ। কেন্দ্রের একটি কক্ষে লুকিয়ে রাখা ছিল বস্তাটি।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল ওই বিদ্যালয় খোলার পর শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা শ্রেণিকক্ষে গিয়ে একটি বস্তা দেখতে পান। সন্দেহজনক হওয়ায় বিষয়টি স্থানীয় লোকজনকে জানানো হয়। বস্তা খুলে ব্যালট পেপার দেখে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা। বস্তায় তিন মেম্বার প্রার্থীর সিল মারা ব্যালট ছিল। গত বৃহস্পতিবার ভোট গ্রহণ শেষে এই ওয়ার্ডে ভ্যানগাড়ি মার্কার প্রার্থী জহুরুল ইসলামকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। ওই সময় বিষয়টি বুঝতে পেরে প্রতিদ্বন্দ্বী মোরগ মার্কার প্রার্থী শহীদুল ইসলাম উপজেলা রিটার্নিং অফিসার বরাবর পুনরায় ভোট গণনার দাবি জানিয়ে লিখিত আবেদন করলেও পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

রায়গঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম বলেন, ব্যালটভর্তি বস্তা উদ্ধারের ঘটনায় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান বলেন, 'বস্তাভর্তি সিল মারা ব্যালট উদ্ধারের ঘটনায় পরাজিত প্রার্থীরা আদালতে মামলা করে প্রতিকার পেতে পারেন।'

এ ব্যাপারে কেন্দ্রটির প্রিসাইডিং অফিসার জয়দেব কুমারের সঙ্গে কথা বলতে একাধিকবার ফোনে চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।