নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের কদমতলী এলাকার আদনান টাওয়ারে গ্যাসলাইন বিস্ফোরণে দগ্ধ মো. মামুন (২৮) মারা গেছেন।

ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানান আবাসিক চিকিৎসক এসএম আইয়ুব হোসেন। 

ডা. আইয়ুব বলেন, ‘মামুনের শরীর প্রায় শতভাগ আগুনে পুড়ে গিয়েছিল।’

ওই ঘটনায় দগ্ধ জীবন মিয়া (২০) ও পারভেজ হোসেনের (২৭) অবস্থাও আশঙ্কাজনক। তারাও একই হাসপাতালে ভর্তি। তাদের মধ্যে পারভেজের শরীরের ৯৯ শতাংশ আর জীবন মিয়ার শরীরের ৩০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে বলে এসএম আইয়ুব হোসেন জানান।   

তারা সবাই স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। সাততলাবিশিষ্ট আদনান টাওয়ারের চতুর্থ তলায় তারা ভাড়া থাকতেন।

বৃহস্পতিবার ওই বাসা ঘুরে দেখার পর আদমজী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের জ্যেষ্ঠ স্টেশন অফিসার রুহুল আমিন বলেছিলেন, আগুনের ঘটনাটি ‘রহস্যজনক’।