নরসিংদীতে তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিভিন্ন ইউনিয়নে বিচ্ছিন্ন হামলা, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলিবিদ্ধ হয়ে ২০ জন আহত হয়েছে। রোববার দুপুরে সদর উপজেলার করিমপুর, নজরপুর, চিনিশপুর এবং রায়পুরা উপজেলার পলাশতলী ইউনিয়নের বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

স্থানীয়রা জানান, সদর উপজেলার করিমপুর ইউনিয়নের শ্রীনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম কিবরিয়াকে অবরুদ্ধ করে নৌকার প্রার্থী মুমিনুর রহমান আপেলের সমর্থকরা। এরই জের ধরে দুপুর ১২ টার দিকে নৌকার প্রার্থী মুমিনুর রহমান আপেল করিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গেলে তাকে অবরুদ্ধ করে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা। এসময় তাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাবার বুলেট ছোঁড়ে। এতে পুলিশের গুলিতে ১০ জন আহত হয়। এ ছাড়া নজরপুর, চিনিশপুরে বিচ্ছিন্নভাবে ককটেল বিস্ফোরণ ও হামলার ঘটনায় আরও ১০ জন আহত হয়। 

এদিকে দুপুর সোয়া ১২টার দিকে চিনিশপুর ইউনিয়নের চিনিশপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এসময় পুলিশ ৪টি তাজা ককটেল উদ্ধার করে। 

এদিকে সদর উপজেলার আমদিয়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী (আনারস প্রতীক) নাজিম উদ্দিন ভূঁইয়া রিপন, কাঁঠালিয়া ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. জহিরুল ইসলাম হিরন মোল্লা ও করিমপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্রপ্রার্থী গোলাম কিবরিয়া ভোট বর্জন করার ঘোষণা দেন।