লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে খামারে বিষ প্রয়োগ করে ১০ লক্ষাধিক টাকার মাছ মেরে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার চরলরেন্স ইউনিয়নের পাঁচ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্যচাষি জহিরুল ইসলাম থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

জহির আট বছর ধরে তিন একর জমিতে খামার তৈরি করে মাছ চাষ করে আসছিলেন। প্রতি বছরের মতো এবারও তিনি খামারে রুই, কাতল, মৃগেল, তেলাপিয়াসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছের চাষ করেন। শনিবার সন্ধ্যায় কে বা কারা তার খামারে বিষ প্রয়োগ করলে মাছগুলো মরে ভেসে ওঠে। পরে খামার থেকে কীটনাশকের দুটি শিশি উদ্ধার করা হয়। বিষক্রিয়ার কারণে রোববার দুপুর পর্যন্ত খামারের প্রায় সব মাছ মরে ভেসে উঠেছে। যার বাজারমূল্য ১০ লক্ষাধিক টাকা বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্যচাষি জহিরুল ইসলাম।

তিনি জানান, খামার সংলগ্ন বাড়ির নুরুল ইসলাম, মিরাজ, নুরুল আনোয়ার, বাবলু ও আবু তাহেরের সঙ্গে তাদের বিরোধ রয়েছে। এ নিয়ে তার মা বাদী হয়ে আদালতে একটি মামলাও করেছেন। এর জেরে প্রতিপক্ষ বিষ প্রয়োগ করেছে বলে তার দাবি।\হতবে অভিযোগ অস্বীকার করে নুরুল ইসলাম জানান, বিষ প্রয়োগে মাছ নিধনের বিষয়ে তারা কিছুই জানেন না। তিনি নিজেও একজন মৎস্যখামারি। তাই এ ধরনের ন্যক্কারজনক কাজ তিনি করতে পারেন না। তিনি এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

কমলনগর থানার ওসি মোহাম্মদ মোসলেহ উদ্দিন জানান, অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।