ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার ৬নং ত্রিলোচনপুর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে জয়ী হয়ে চমক দেখিয়েছেন তৃতীয় লিঙ্গের নজরুল ইসলাম ঋতু। এর মধ্য দিয়ে দেশে এই প্রথম তৃতীয় লিঙ্গের কেউ ইউপি চেয়ারম্যান হলেন।

আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থীকে পেছনে ফেলে বিপুল ভোটে জয়ী হন তিনি। রোববার ভোটগণনা শেষে দেখা যায়, ঋতুর আনারস প্রতীক পেয়েছে নয় হাজার ৫৩৮ ভোট। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম ছানার নৌকা প্রতীক পেয়েছে চার হাজার ৪০৪ ভোট।

নজরুল ইসলাম ঋতু উপজেলার ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের দাদপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের সন্তান। তিনি তৃতীয় লিঙ্গের প্রকাশ পাওয়ার পর পাঁচ বছর বয়সে ঢাকাতে চলে গিয়েছিলেন। সামান্য লেখাপড়া করলেও সামাজিক নানা প্রতিবন্ধকতায় প্রাথমিকের গণ্ডি পেরোনো হয়নি তার।

ছোটবেলা থেকেই ঢাকার ডেমরা থানাতে বসবাস তার। এখানেই বেড়ে উঠেছেন তিনি। এখন তার বয়স ৪৩ বছর। ঢাকাতে থাকলেও পরিবারের টানে প্রায়ই বাড়িতে আসেন তিনি।

কষ্টার্জিত অর্থ দিয়ে প্রায় ১৫ বছর ধরে দাদপুর গ্রামসহ ইউনিয়নবাসীর উন্নয়নে আর্থিক সহযোগিতা করে আসছেন তিনি। এ পর্যন্ত তার এলাকায় দুইটি মসজিদসহ বিভিন্ন মন্দিরের উন্নয়নে অর্থ দান করেছেন। এলাকার কেউ অসুস্থ বা কন্যাদায়গ্রস্ত হয়ে তার কাছে গিয়ে কখনও বিমুখ হয়নি।

নির্বাচন প্রসঙ্গে নজরুল ইসলাম ঋতু বলেন, আমার পরিবারের সবাই আওয়ামী লীগ করে। বাবা মারা যাওয়ার সময় বলেছিল, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান দেশের জন্য অনেক কিছু করেছেন, যতদিন বাঁচবে, তার আদর্শেই কাজ করবে। এবারে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেলেও এলাকার মানুষ আমাকে ভালোবেসে ভোটে দাঁড় করিয়েছিল। অবশেষে তাদের ভালোবাসায় জয়ী হয়েছি।

এর আগে গত উপজেলা নির্বাচনে পার্শ্ববর্তী উপজেলা কোটচাদপুরে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তৃতীয় লিঙ্গের পিংকি খাতুন। তখন দেশের প্রথম তৃতীয় লিঙ্গের জনপ্রতিনিধির স্বীকৃতি পান তিনি।