গাইবান্ধায় স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে মাইদুল ইসলাম মিঠু (৩৬) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার গাইবান্ধার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক দীলিপ কুমার ভৌমিক এই রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় আসামি মাইদুল ইসলাম আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ফারুক আহমেদ প্রিন্স জানান, ২০০৬ সালে সদর উপজেলার বল্লমঝাড় ইউনিয়নের নারায়ণপুর গ্রামের মোফাজ্জল হোসেনের ছেলে মাইদুল ইসলামের সঙ্গে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ফুলহার গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের মেয়ে খাতিজা বেগমের বিয়ে হয়। দীর্ঘ ৯ বছরের সংসারে তাদের এক ছেলে ও এক মেয়ে জন্ম নেয়। পরে ২০১৫ সালে তাদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। বিচ্ছেদের দুই বছর পর ২০১৭ সালে আবার তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। তখন থেকেই মাইদুল ইসলাম গোবিন্দগঞ্জের ফুলহার গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে বসবাস শুরু করেন। শ্বশুরবাড়িতে থাকাকালীন প্রায়ই তাদের মধ্যে ঝগড়া হতো। একপর্যায়ে ২০১৭ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি রাতে মাইদুল ইসলাম তার স্ত্রী খাতিজাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পালিয়ে যান। পরদিন সকালে বিছানার ওপর গলায় ওড়না জড়ানো খাতিজার মরদেহ দেখতে পায় পরিবারের লোকজন।

পরে নিহত খাদিজা বেগমের বাবা আব্দুর রাজ্জাক বাদী হয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ মাইদুলকে গ্রেপ্তার করে। দীর্ঘ শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার আদালত আসামি মাইদুল ইসলামকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন।