চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলায় এক সপ্তাহ পর টয়লেটের রিংয়ের ভেতর থেকে আকিব হাসান (১৭) নামে এক কিশোরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার হাঈদগাঁও ইউনিয়নের আদর্শগ্রামের আশ্রয়ন প্রকল্প এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয় বলে সমকালকে জানান পটিয়া থানার উপ পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) ও তদন্ত কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার ঘোষ।

আকিব পটিয়া পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের মধ্যম গোবিন্দরখীল এলাকার কামাল কোম্পানী বাড়ির মোহাম্মদ আলীর পুত্র। আকিব কামাল বাজারে তার বাবার মুদির দোকানে কাজ করত। 

সঞ্জয় কুমার ঘোষ জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লোকজন দুর্গন্ধ পেয়ে টয়লেটের রিংয়ের ভেতর গলিত লাশ দেখতে পায়। পরে স্থানীয় পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের গলিত লাশ উদ্ধার করে। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। 

তিনি বলেন, ‘কোনো চক্র তাকে হত্যা করে থাকতে পারে। তার পরিবারের অভিযোগ আমরা খতিয়ে দেখছি। সবাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করছি।’ 

নিহতের পিতা মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘গত ২৬ নভেম্বর শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে আকিবের বন্ধু আমিনুল হক তাকে তার মোবাইলে কল দিয়ে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকে আকিবের আর খোঁজ মেলেনি। তার ব্যবহৃত মুঠোফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়। আমার ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। আমার নিরীহ ছেলেকে কে বা কারা হত্যা করেছে তা পুলিশ তদন্ত করে বের করুক। আমি আমার ছেলে হত্যার বিচার চাই।’