চট্টগ্রাম নগরের কোতোয়ালি থানা থেকে আদালতে নেওয়ার সময় পুলিশ হেফাজত থেকে পালিয়ে যাওয়া মাদক মামলার আসামি আবুল কালামকে (২৫) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মিয়ানমারের নাগরিক আবুল কালাম কক্সবাজারের টেকনাফ থানার লেদা পাড়ায় বসবাস করা রোহিঙ্গা শরণার্থী। তার বাবার নাম হামিদ হোসেন।

সোমবার সকালে টেকনাফের লেদাপাড়া ক্যাম্প থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নেজাম উদ্দিন।

রোববার কোতোয়ালি থানা থেকে আদালতে নেওয়ার সময় পুলিশ হেফাজত থেকে পালিয়ে যান আবুল কালাম। এ ঘটনায় চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ (সিএমপি) দক্ষিণের এডিসি আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। আর দায়িত্বে অবহেলার জন্য এক এসআই ও দুই কনস্টেবলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় বলে জানান সিএমপি দক্ষিণের ডিসি জসিম উদ্দীন।

তিনি জানান, রোববার নগরের কোতোয়ালি থানার কদমতলী মোড়ের উত্তর পাশে ফরিদের চায়ের দোকান থেকে এক হাজার ৫০ পিস ইয়াবাসহ আবুল কালামকে আটক করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় গোয়েন্দা শাখা। এ ঘটনায় অধিদপ্তরের বিভাগীয় গোয়েন্দা শাখার উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ্দ টিপু সুলতান বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। পরে আসামি আবুল কালামসহ কোতোয়ালি থানা থেকে একাধিক আসামি আদালতে আনা হয়। আদালতে কোর্ট পুলিশকে বুঝিয়ে দেওয়ার সময় আসামির নাম ঠিকানা মেলানোর সময় তাকে পাওয়া যায়নি। থানা থেকে আদালতে নেওয়ার সময় চম্পট দেয় এই আসামি।