নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার আমিরগঞ্জে স্ত্রীকে হত্যার দশ বছর পর নাহিদ হোসেন (৩৬) নামের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার নরসিংদীর অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত নাহিদ হোসেন পাবনা জেলার দক্ষিণ রাম চন্দ্রপুর গ্রামের ছাদু মিয়ার ছেলে। তিনি রায়পুরা উপজেলার করিমগঞ্জ এলাকার আবুল হাসিমের মেয়ে বিলকিসকে বিয়ে করে আমিরগঞ্জ গ্রামে বসবাস করতেন।
 
আদালত সূত্রে জানাযায়, ২০১০ সালের ২৯ মার্চ রায়পুরা উপজেলার আমিরগঞ্জ সরকারি কমিউনিটি ক্লিনিকের একটি পরিত্যক্ত রুম থেকে বিলকিস বেগমের ক্ষত-বিক্ষত লাশ উদ্ধার করে রায়পুরা থানা পুলিশ। পরে নিহত বিলকিসের ভাই মোক্তার হোসেন বাদী হয়ে রায়পুরা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। বিলকিসের পলাতক স্বামী নাহিদ হোসেনকে ২০১২ সালে পাবনা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। দীর্ঘ ১০ বছর পর আদালত ১৪ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে নাহিদকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো একবছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন।

রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী এম এ এন অলিউল্লাহ জানান, দীর্ঘ বছর পর হলেও নিহত বিলকিসের হত্যাকারী নাহিদ হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়ায় বাদী পক্ষ সন্তেুাষ প্রকাশ করেছেন।