ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. তাজুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে পাঁচ বছরের মেয়ে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। রোববার সকালের এ ঘটনায় ওইদিন সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী শিশুটির মা বাদী হয়ে অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন।

অভিযুক্ত মো. তাজুল ইসলাম উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের সোহাগপুর গ্রামের পশ্চিম পাড়ার প্রয়াত আব্দুল জলিলের ছেলে। সে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী শিশুটির মা জানান, রোববার সকালে তিনি তার মাদ্রাসা পড়ুয়া ছেলেকে দেখতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া যান। দুপুরে বাড়িতে ফিরে তিনি তার মেয়ে শিশুকে বিছানায় শুয়ে থাকতে দেখেন। তাকে গোসল করাতে নিয়ে গেলে তার গোপনাঙ্গ রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে তিনি শিশুটির সমস্যা জানতে চান। এসময় শিশুটি তাকে জানায়, পাশের বাড়ির তাজুল ইসলাম তাকে ১০ টাকা দিয়ে বাড়িতে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। এসময় তাজুলের বাড়িতে কেউ ছিল না। তাই শিশুটি চিৎকার ও কান্নাকাটি করলেও কেউ এগিয়ে আসেনি। মেয়ের মুখে এসব শুনে তিনি মেয়েটিকে নিয়ে থানায় আসেন।

এই ব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ওসি মো. আজাদ রহমান জানান, শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা ও চিকিৎসার জন্য জেলাসদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। শিশুর মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে থানায় মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে।