শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে ছেলের মুগুরের আঘাতে জহুরা খাতুন নামে এক নারীর মর্মান্তিক মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার বেলা এগারোটার দিকে উপজেলার সীমান্তবর্তী পানিহাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছেলে জহুরুল ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত জহুরা খাতুন পানিহাটা এলাকার সাহের উদ্দিনের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার সকালে জহুরুল ও তার মা জহুরার মধ্যে পারিবারিক বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মা ছেলেকে শাসন করতে চাইলে ছেলে জহুরুল ক্ষিপ্ত হয়ে হাতের কাছে থাকা কাঠের মুগুর দিয়ে মা জহুরার মাথায় আঘাত করেন। এতে মাথা ফেটে ঘটনাস্থলেই ছটফট করতে করতে মারা যান জহুরা।

পুলিশ জানায়, ঘটনার পরপরই বাড়ি থেকে পালিয়ে যান জহুরুল ইসলাম। পরে এ ঘটনা জানাজানি হলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন এবং এলাকাবাসী মিলে অভিযুক্ত জহুরুলকে পার্শ্ববর্তী হালুয়াঘাট উপজেলার বারালিয়াকোনা গ্রামে তার ভগ্নিপতির বাড়ি থেকে আটক করে থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন।

নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বছির আহমেদ বাদল জানান, এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।