সিরাজগঞ্জের তাড়াশে নিখোঁজের তিন দিন পর দীঘি থেকে বাচ্চু শেখ (৬০) নামে এক ব্যক্তির ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে পৌর এলাকার উলিপুর দীঘি থেকে তার  লাশটি উদ্ধার করা হয়। বাচ্চু শেখ তাড়াশ সদর ইউনিয়নের মাধবপুর গ্রামের মৃত জামাল উদ্দিনের ছেলে।

এ দিকে স্বামীর নিখোঁজ হওয়ার খবর পেয়ে বাচ্চু শেখের স্ত্রী মর্জিনা খাতুন (৫০) রোববার সকালে  হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

মারা যাওয়া বাচ্চু শেখ উলিপুর দীঘির মাছ পাহারার কাজ করতেন। গত শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে দায়িত্বে থাকা অবস্থায় নৌকা থেকে তিনি নিখোঁজ হন।

তাড়াশ থানার ওসি মো. ফজলে আশিক মরদেহটি উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, মরদেহ উদ্ধারের পর ময়না তদন্তে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বাচ্চু শেখ একই এলাকার উলিপুর গ্রামে নিমগাছী সমাজ ভিত্তিক মৎস্য চাষ প্রকল্পের একটি দীঘিতে মাছ পাহারার কাজ করতেন। গত ১৭ ডিসেম্বর রাতে তিনি দীঘির মাছ পাহারা দিতে যান। পরে আর বাড়ি ফেরেননি। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও স্বজনরা তাকে না পেয়ে তাড়াশ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

এ প্রসঙ্গে তাড়াশ থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মো. ফজলে আশিক জানান, মরদেহের শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন নেই।  ময়না তদন্তের জন্য নৈশ প্রহরী বাচ্চু শেখের মরদেহটি সিরাজগঞ্জ শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।