চলছে চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। সারাদেশের মতো ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্দ ইউনিয়ন পরিষদেও চলছে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠান। ভোটগ্রহণ চলাকালে দুপুরে এই ইউনিয়নের উত্তর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর এজেন্টের কাছ থেকে সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারের নাম লেখা টাকার খাম পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় ওই কেন্দ্রের সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার অলোক কুমার চক্রবর্তীকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এছাড়া হাবিবুল বাশার (৩৮) নামে ওই এজেন্টকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুল ইসলাম।

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত বাশার মনিয়ন্দ ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী লুৎফুর রহমান ভূঁইয়ার এজেন্ট ছিলেন।

মনিয়ন্দ উত্তর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মো. ইফতেখার রসুল সিদ্দিক জানান, ওই এজেন্ট কেন্দ্রে বসে মোবাইলে কথা বলছিলেন। তার কাছ থেকে মোবাইল নিতে চাইলে তিনি উত্তেজিত হয়ে খারাপ আচরণ করেন। পরে তার কাছ থেকে আরও একটি মোবাইল ফোন এবং সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার অলোক কুমার চক্রবর্তীর নাম লেখা একটি খাম উদ্ধার করা হয়। খামে ১৭ হাজার টাকা ছিল।

আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুমানা আক্তার জানান, টাকার খাম উদ্ধারের ঘটনায় সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারকে কেন্দ্র থেকে প্রত্যাহার করে এজেন্টকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে আখাউড়া উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নে নির্বাচন হচ্ছে। তার মধ্যে মনিয়ন্দ ইউনিয়ন পরিষদ অন্যতম।