রংপুরের মিঠাপুকুরে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন মামলায় প্রধান শিক্ষক গ্রেপ্তার হয়েছেন। রোববার বিকেলে ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বেশ কিছুদিন ধরে বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে কৌশলে ছাত্রীদেরকে কাছে ডেকে নেন। এরপর নানা অজুহাতে মেয়েদের শরীরে হাত বুলিয়ে দেন। এভাবে তিনি দিনের পর দিন কোমলমতি শিক্ষার্থীদের যৌন নিপীড়ন চালিয়ে যাচ্ছেন। এতোদিন ভয় ও লজ্জায় শিশুরা বিষয়টি অভিভাবকদের জানায়নি। 

এক সপ্তাহ ধরে তৃতীয় শ্রেণির ৪/৫ জন ছাত্রী বিদ্যালয়ে যাচ্ছিল না। অভিভাবকরা বিদ্যালয়ে না যাওয়ার কারণ জানতে চাইলে, শিক্ষার্থীরা বিষয়টি খুলে বলে। দোতলায় ছাদের ওপর খেলাধুলা করার সময় ওই প্রধান শিক্ষক ছাত্রীদেরকে পাঞ্জা করে ধরে কোলে নেন এবং শরীরের বিভিন্ন জায়গায় হাত দেন।এভাবে অনেকদিন ধরে তিনি এই কাজ করে আসছেন। সর্বশেষ ২২ ডিসেম্বর একই ঘটনা ঘটান। এরপর বিষয়টি জানাজানি হয়। এ ঘটনায় এক ছাত্রীর অভিভাবক মিঠাপুকুর থানায় রোববার একটি মামলা দায়ের করেন। এরপরই পুলিশ ওই প্রধান শিক্ষককে গ্রেপ্তার করে। 

এই ব্যাপারে মিঠাপুকুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজার রহমান বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। মামলা দায়েরের পর একমাত্র আসামি ওই প্রধান শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।