ঢাকা শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪

ছাত্রলীগের সংঘর্ষে যুবলীগ নেতাসহ আহত ৫

ছাত্রলীগের সংঘর্ষে যুবলীগ নেতাসহ আহত ৫

শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি 

প্রকাশ: ০৬ ডিসেম্বর ২০২৩ | ২১:০০

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে কলেজ ক্যাম্পাসে প্রাধান্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে যুবলীগ সদর ইউনিয়নের সভাপতি হাসানুজ্জামান হাসানসহ (৩০) পাঁচজন আহত হয়েছেন। বুধবার দুপুরে উপজেলার সরকারি মহসীন কলেজে এ ঘটনা ঘটে।

অপর আহতরা হলেন– কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদুল (২২), কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী ফয়সাল হায়দার (২১), ছাত্রলীগকর্মী আজগর আলী (২০) ও আকাশ (২১)। ফয়সাল হায়দার স্থানীয় সংসদ সদস্য উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এস এম জগলুল হায়দারের ভাতিজা।

আহতদের মধ্যে চারজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যজনকে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ফয়সাল হায়দার অভিযোগ করে বলেন, বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রনি ও তাঁর ভাই রাজসহ ছাত্রলীগের কিছু কর্মী কলেজ ক্যাম্পাসে যান। এ সময় তাদের সঙ্গে তাঁর বাগ্বিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে তারা তাঁকে (ফয়সাল) ক্যাম্পাস ছেড়ে যাওয়াসহ পরে সেখানে যেতে নিষেধ করেন। খবর পেয়ে সদর ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি হাসানুজ্জামান ঘটনাস্থলে গেলে রনি ও রাজের নেতৃত্বে তাঁর ওপর হামলা হয়। এ সময় প্রতিবাদ করতে গেলে প্রতিপক্ষের ছোড়া ইটের আঘাতে হাসানুজ্জামানসহ তারা পাঁচজন আহত হন। তাঁর চাচার সংসদীয় আসনে সাতক্ষীরা-৪ (শ্যামনগর-কালীগঞ্জ আংশিক) মনোনয়ন পাওয়া আতাউল হক দোলনের সমর্থক ছাত্রলীগের কর্মীরা এই হামলা করেন।

অভিযুক্ত রাজ জানান, ফয়সাল উল্টাপাল্টা কথা বলায় তাদের মধ্যে তর্কবিতর্ক ঘটে। এক পর্যায়ে ফয়সাল তাদের ওপর চড়াও হলে দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়ায়। এতে তাদের কয়েকজন কর্মী আহত হয়েছেন বলেও তিনি দাবি করেন।

আহত যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীকে দেখতে গিয়েছিলেন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাতক্ষীরা-৪ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউল হক দোলন। তিনি বলেন, এসব (সংঘর্ষের ঘটনা) তিনি পছন্দ করেন না। নিজ দলের কর্মীদের মধ্যে বিবাদের ঘটনা কোনোভাবে মেনে নেওয়া হবে না।

শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষের ঘটনায় এখন পর্যন্ত (বুধবার সন্ধ্যা) থানায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন

×