ঢাকা শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪

নির্বাচনী সহিংসতায় যুবক নিহত, পিরোজপুরে বিক্ষোভ

নৌকা-স্বতন্ত্র বিরোধ

নির্বাচনী সহিংসতায় যুবক নিহত, পিরোজপুরে বিক্ষোভ

নিহত লালন। ছবি-সংগৃহীত

পিরোজপুর প্রতিনিধি 

প্রকাশ: ১২ ডিসেম্বর ২০২৩ | ০১:৫৭ | আপডেট: ১২ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১০:১৯

পিরোজপুরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে নির্বাচনী সহিংসতায় লালন ফকির (২৫) নামের এক যুবক মারা গেছেন। এর প্রতিবাদে জেলা শহরে সোমবার রাতে বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে।  

শনিবার রাতে নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যকার পাল্টাপাল্টি হামলায় লালন গুরুতর আহত হয়ে ঢাকায় চিকিৎসাধীন ছিলেন। সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। তাঁর বাড়ি সদর উপজেলার ডুমরিতলা গ্রামে। লালনের মৃত্যুর খবর পিরোজপুরে পৌঁছালে রাতেই শহরে যুবলীগ-ছাত্রলীগসহ আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী বিক্ষোভে ফেটে পড়েন।

নিহত লালন ফকির পিরোজপুর-১ আসনের সাবেক এমপি আউয়ালের সমর্থক ছিলেন বলে জানা গেছে। আরেকটি সূত্র দাবি করেছে, লালন পিরোজপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক ছিলেন।

জানা গেছে, শনিবার সন্ধ্যার পর শারিকতলা-ডুমরিতলা ইউনিয়নে নৌকা মার্কার প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে হামলা ও ভাঙচুর করা হয়। এ ঘটনায় লালন ফকির ও তাঁর সহযোগীরা জড়িত বলে নৌকা মার্কার সমর্থকদের অভিযোগ। ওই রাতেই অন্তত ২০-২৫ জন লোক লালনের মাথা, মুখমণ্ডল, হাত-পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। ওইদিনই লালনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমে খুলনা ও পরে ঢাকায় পাঠানো হয়।

এদিকে লালন হত্যার প্রতিবাদে গত রাতে শহরে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়ালের সমর্থকরা শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এ সময় তারা পিরোজপুর-১ আসনের নৌকার প্রার্থী বর্তমান এমপি এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেয়। 

বিক্ষোভ মিছিলসহ জেলা শহরে উত্তেজনা দেখা দেওয়ায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানান পিরোজপুর সদর থানার ওসি মো. আশিকুজ্জামান।

পিরোজপুরের পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, লালন হত্যার ঘটনায় জড়িতদের পুলিশ শনাক্ত করেছে। দায়ীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

আরও পড়ুন

×