ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ভোটের আগেই ভোট উৎসবে মেতেছে কোটালীপাড়াবাসী

প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনী জনসভা

ভোটের আগেই ভোট উৎসবে মেতেছে কোটালীপাড়াবাসী

ছবি-সমকাল

গোপালগঞ্জ ও কোটালীপাড়া প্রতিনিধি

প্রকাশ: ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১৩:০৪

ভোটের এখনও সাত দিন বাকি থাকলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে এখনই ভোট উৎসব শুরু করে দিয়েছেন গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়াবাসী। আর এই উৎসবের আভা ছড়িয়ে পড়েছে কোটালীপাড়া উপজেলার সর্বত্র।  

শনিবার কোটালীপাড়া শেখ লুৎফর রহমান আদর্শ সরকারি কলেজ মাঠে প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনী জনসভায় ইতোমধ্যে যোগ দিয়েছেন উপজেলার সকল স্তরের নেতাকর্মীরা। সকাল ১১টা থেকে জনসভাস্থলে কোটালীপাড়া উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর শিল্পীরা মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা ও নৌকা প্রতীক নিয়ে রচিত গান পরিবেশন করছেন। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভাকে কেন্দ্র করে সাত দিন আগে থেকেই আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী এবং সাধারণ মানুষের মধ্যে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে।

কাক ডাকা ভোর থেকে কোটালীপাড়া উপজেলার কলাবাড়ি, কান্দি, ধারাবাসাইল, রামশীল, রাধাগঞ্জ, সাদুল্লাপুর, শুয়াগ্রাম, আমতলীসহ ১১টি ইউনিয়ন থেকে হাজার হাজার নেতাকর্মী ঢাক ঢোল পিটিয়ে নেচে গেয়ে নৌকা নৌকা স্লোগানে এলাকা প্রকম্পিত করে জনসভাস্থলের দিকে যায়। বিজয়ের মাসে জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার নামে স্লোগান দিয়ে গোটা কোটালীপাড়াকে উৎসব মুখর করে তোলেন তারা। বর্ণিল পতাকা, ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টারে পোস্টারে নব রূপে সেজেছে পুরো কোটালীপাড়া। 

১৯৮৬ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ আসন থেকে সাতবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। এর মধ্যে তিনি চারবার প্রধানমন্ত্রী ও তিনবার বিরোধীদলীয় নেতার দায়িত্ব পালন করেছেন।

শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়ে কোটালীপাড়ার সব ক্ষেত্রে উন্নয়ন করেছেন। অর্থ সামাজিক অবস্থার ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে কোটালীপাড়ার। বেড়েছে কৃষি উৎপাদন। গড়ে উঠেছে কৃষি নির্ভর শিল্প ও ফার্ম। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কোটালীপাড়া বাসীর আস্থা অবিচল।

কোটালীপাড়া উপজেলার কলাবাড়ি গ্রামের ভোটার উর্মিলা অধিকারী বলেন, কোটালীপাড়ার যত উন্নয়ন সবই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করেছেন। তিনি আমাদের সবকিছু দিয়েছেন। আমাদের ভোটে তিনি প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। এজন্য আমরা গর্বিত। আমরা তার বাইরে কাউকেই ভোট দেব না। তিনি আমাদের একমাত্র অভিভাবক ও আস্থার স্থল। তাই ৭ জানুয়ারির ভোটের আগেই আমাদের এখানে ভোট উৎসব শুরু হয়েছে। আমরা সর্বোচ্চ ভোট দিয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে আবারও নির্বাচিত করব। 

আরও পড়ুন

×