ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

হেফজখানায় ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ

হেফজখানায় ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ

প্রতীকী ছবি

আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা

প্রকাশ: ১৯ জানুয়ারি ২০২৪ | ২০:৫৯

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় একটি হেফজখানা থেকে এক শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। মাদ্রাসার একটি কক্ষের জানালার সঙ্গে ঝুলছিল তার লাশ। মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। তার নাম মোহাম্মদ উমাইর (৯)। সে গলায় গামছা পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে দাবি করেছে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। 

শুক্রবার উপজেলার বারশত ইউনিয়নের কালিবাড়ী এলাকার দারুত তাহফিজ বালক-বালিকা মডেল মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে। 

জানা গেছে, নিহত উমাইর আনোয়ারার বটতলী ইউনিয়নের আইরমঙ্গল গ্রামের মোহাম্মদ সৈয়দের ছেলে। শিশুটি ১০ দিন আগে মাদ্রাসায় ভর্তি হয়েছিল। এর পর থেকে বাড়ি যাওয়ার জন্য কান্নাকাটি করত। বৃহস্পতিবার রাতেও তার মায়ের সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছিল; কিন্তু শিক্ষকরা তাকে কথা বলতে দেয়নি। গতকাল সকাল ৮টায় বিরতির সময় সব শিক্ষার্থী ঘুমিয়ে পড়ে। সেই সুযোগে উমাইর একটি নির্জন কক্ষে গিয়ে গলায় গামছা পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

দারুত তাহফিজ বালক-বালিকা মডেল মাদ্রাসার পরিচালক আবদুর রহমান বলেন, নিহত উমাইর আমার বড় বোনের ছেলে। শুক্রবার সকালে বিরতির সময় অন্যরা ঘুমিয়ে পড়লে সে আত্মহত্যা করে। পরে ছাত্ররা তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে আমাদের জানালে পুলিশে খবর দেওয়া হয়।

আনোয়ারা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, মাদ্রাসায় এক শিশু শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে আত্মহত্যা বলেই মনে হচ্ছে। তবে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলেই মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে। এর পরই আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন

×