ঢাকা বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

মঠবাড়িয়ায় বিএনপির কার্যালয়ে আ’লীগের তালা

মঠবাড়িয়ায় বিএনপির কার্যালয়ে আ’লীগের তালা

প্রতীকী ছবি

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১৯ জানুয়ারি ২০২৪ | ২২:২৯

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় উপজেলা বিএনপির কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মীরা। শুক্রবার দুপুরে শহরের তুষখালী সড়কের দলীয় কার্যালয়ের শাটারে তিনটি তালা মারা হয়। এ সময় দলের প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এবং স্থানীয় নেতাদের গালমন্দও করা হয়। অভিযুক্তরা সদ্য নির্বাচিত স্বতন্ত্র এমপি শামীম শাহনেওয়াজ ও তাঁর ছোট ভাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুর রহমানের অনুসারী বলে জানা গেছে। 

মঠবাড়িয়া পৌর বিএনপির আহ্বায়ক কে এম হুমায়ুন কবির বলেন, শুক্রবার বিকেলে উপজেলা বিএনপির কার্যালয়ে জিয়াউর রহমানের ৮৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভা ছিল। এর আগেই দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ১০ থেকে ১২ জন আওয়ামী লীগ কর্মী আমাদের কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দেন। বিকেল ৪টার দিকে বিএনপির নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয় বন্ধ পান। পরে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে তারা জানতে পারেন আওয়ামী লীগের কিছু কর্মী তালা দিয়ে গেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আওয়ামী লীগের কর্মী প্রভাত রায় ও সিফাত আকনের নেতৃত্বে এক দল যুবক বিএনপি কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দেন। 

প্রভাত রায়ের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি তালা দেওয়ার কথা অস্বীকার করেন। ক্ষমতাসীন দলে তাঁর কোনো পদ না থাকলেও তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান সিফাতের সহযোগী।

উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক রুহুল আমিন দুলাল বলেন, আমাদের দলীয় কার্যালয়ে তালা মেরে দেওয়া হয়েছে। শান্তিপূর্ণ মিলাদ মাহফিল করতেও বাধা দেওয়া হচ্ছে।

অন্যদিকে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুর রহমান এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, শহরের রুটি পট্টির বিএনপির একাংশের অফিসটি সরকারি সম্পত্তির ওপর। এ অফিস নিয়ে বিরোধ আছে, এখানে রাজনৈতিক কোনো বিষয় নেই। স্বতন্ত্র এমপি শামীম শাহনেওয়াজ কল রিসিভ না করায় তাঁর বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি শফিকুল ইসলাম বলেন, বিএনপি কার্যালয়ে তালা দেওয়া নিয়ে কেউ অভিযোগ করেননি।

আরও পড়ুন

×