সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার যুক্তি-তর্ক শুরু হয়েছে। রোববার সকাল সোয়া ১০টার দিকে কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাঈলের আদালতে এই যুক্তি-তর্ক শুরু হয়।

এ উপলক্ষে অভিযুক্ত টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ কারান্তরীণ সব আসামিকে আদালতে তোলা হয়েছে। এর আগে গত ১ ডিসেম্বর আসামিদের আত্মপক্ষ সমর্থন করে সাফাই সাক্ষ্য শেষে যুক্তি-তর্ক উপস্থাপনের জন্য ৯ থেকে ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত দিন ধার্য করেছিলেন আদালত।

প্রসিকিউটর (পিপি) ও রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ফরিদুল আলম রোবববার সমকালকে জানান, সিনহা হত্যার মামলার বিচারিক কার্যক্রমের শেষ অংশ যুক্তি-তর্ক শুরু হলো। আজকের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তি-তর্ক শেষ করতে চেষ্টা করবে রাষ্ট্রপক্ষ। আগামীকাল থেকে আসামিপক্ষ যুক্তি-তর্কে অংশ নেবে।

গত বছরের ২৩ আগস্ট থেকে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাঈলের আদালতে মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা শুরু হয়। তা শেষ হয় গত ১ ডিসেম্বর। এতে মামলার মোট ৮৩ জন সাক্ষীর মধ্যে তদন্তকারী কর্মকর্তাসহ ৬৫ জন সাক্ষ্যদান করেছেন। সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা শেষে আজ যুক্তি-তর্ক শুরু হলো।

গত বছর ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।