কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের বটতৈল দক্ষিণপাড়া এলাকায় দ্রুতগামী বালুভর্তি ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেছে তিন নারীসহ ৪ জনের। 

সোমবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, ভ্যানযোগে চার যাত্রী কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের মন্ডল হোটেলের সামনে পৌঁছালে ঝিনাইদহগামী দ্রুতগতির ট্রাক সামনে থেকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ওই ভ্যানে থাকা তিন যাত্রী ও ভ্যানচালক। 

নিহতরা হলেন— কুষ্টিয়া সদর উপজেলার স্বস্তিপুর এলাকার হোজেল হোসেনের ছেলে ভ্যানচালক মুক্তার হোসেন, একই এলাকার আজিজুল হকের স্ত্রী জেসমিন আক্তার, আলামপুর হালদাপাড়া এলাকার ভাদু মোল্লার মেয়ে রোজিনা খাতুন ও মনোরঞ্জনের স্ত্রী স্বপ্না খাতুন। 

এ সময় গুরুতর আহত এক নারীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নেওয়া হয়েছে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে। 

পুলিশ ট্রাকটি আটক করতে সক্ষম হলেও ট্রাকের চালক পালিয়ে গেছে।

কুষ্টিয়া হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইদ্রিস আলী জানান, কুষ্টিয়া থেকে ছেড়ে আসা ঝিনাইদহগামী একটি দ্রুত গতির ট্রাকের সঙ্গে ওই ভ্যানের ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই চারজন নিহত হন। পরে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ট্রাকটি আটক করা হয়েছে। নিহত ৩ নারী শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন বলে জানা গেছে।