নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নৌকার মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, এখানে নির্বাচনটা হচ্ছে আইভী ভার্সেস অনেক কিছু। সহিংসতা ঘটাতে অনেকপক্ষই এক হতে পারে। আমার প্রতিটি নির্বাচনই চ্যালেঞ্জিং ছিল। বিগত কোনো নির্বাচনই চ্যালেঞ্জবিহীন ছিল না। এই নির্বাচনও চ্যালেঞ্জিং বিভিন্ন কারণে।

তিনি বলেন, আমাকে পরাজিত করতে সব বিপক্ষ এক হয়ে গেছে। এখন সেই পক্ষটা ঘরের হতে পারে, বাইরেরও হতে পারে। তারা সব মিলে গিয়েছে, কীভাবে আমাকে পরাজিত করা যায়। কীভাবে একটা বিশৃংখলা তৈরি করে ভোটটাকে ঝামেলায় ফেলা যায়। কারণ সবাই জানে আমার বিজয় সুনিশ্চিত।

শুক্রবার সকালে নিজ বাসায় সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনকে আমি আগেই জানিয়েছি, যাতে ভোট কেন্দ্রে ভোটার যেতে পারেন। নারী ভোটার ও তরুণ ভোটাররা যেন যেতে পারেন। কারণ এ ভোটগুলো আমার। কোনো ধরনের সহিংসতা যেন না হয়। ভোটকেন্দ্রে সহিংসতা না হলে আমার বিজয় সুনিশ্চিত। নির্বাচনে আমি জিতবই, ইনশাল্লাহ। আইভী বলেন, তবে আমার বিজয় সুনিশ্চিত জেনে কেউ যদি ভোট কেন্দ্রে সহিংসতা করে সেটি মোটেও ঠিক হবে না। এক্ষেত্রে আমি আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর কাছে অনুরোধ করব তারা যেন বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখে। 

আইভী বলেন, আমি সবসময় শান্তির পক্ষে। আমি মনে করি না যে, সে রকম কিছু (সহিংসতা) হবে আমার তরফ থেকে। আমার ওই ধরনের কোনো বাহিনী নাই। আমি কোনোদিন সহিংসতা করিও নাই।

 ভোটে সহিংসতা হলে নিজের ক্ষতির আশঙ্কা করে তিনি বলেন, একটি পক্ষ সহিংসতা চাচ্ছে। আমার নির্বাচনি এলাকায় যেখানে সবচেয়ে বেশি জমজমাট, সেই জায়গাগুলোর মধ্যে হয়তো কেউ সহিংসতা করে ভোটকেন্দ্রে আসতে বাধা দিতে পারে। আমি প্রশাসনকে বরাবরই বলে আসছি ভোটের দিন যেন উৎসবমুখর পরিবেশ থাকে, আমার নারী ভোটাররা যেন আসতে পারে, নতুন প্রজন্মের ভোটাররা যেন আসতে পারে। কারণ আমি জানি এই ভোটগুলো আমার এবং আমি নির্বাচনে জিতব ইনশাআল্লাহ। সুতরাং আমার বিজয় সুনিশ্চিত যেনে কেউ যদি সহিংসতা করে, তাহলে এটা ঠিক হবে না।

নারায়ণগঞ্জে গিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদের প্রভাব খাটানোর বিষয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের অভিযোগের জবাবে আইভী বলেন, নির্বাচন পর্যবেক্ষণে অনেকেই আসেন। সেটা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য হতে পারে অথবা অন্য কেউ হতে পারে। এই ব্যাপারে আমার জানা নেই কারা আসছে আর কারা থাকছে।

আগামী রোববার (১৬ জানুয়ারি) এ সিটিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।