গৃহকর্মীর বেশে বাসা বাড়িতে ঘুরে বেড়ান স্ত্রী। কোন বাসা কখন খালি থাকে তার তথ্য জোগাড় করেন। সেই তথ্য দেন স্বামীকে। পরে স্বামী দলবল নিয়ে ফাঁকা থাকা সেই বাসা চুরি করেন। গতমাসে এক প্রবাসীর ফাঁকা বাসা চুরির মামলা তদন্ত করতে গিয়ে স্বামী-স্ত্রীসহ চোর চক্রটিকে শনাক্ত করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত নোয়াখালী ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে ১৩ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, দুই হাজার সৌদি রিয়াল ও ইমিটেশনের স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তার চারজন হলেন- নোয়াখালী জেলার মাইজদী থানার বিশের দীঘি গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে সাইফুদ্দিন ও তার স্ত্রী রুমা আক্তার এবং বায়েজিদ বোস্তামী থানার পূর্ব শহীদনগর গ্রামের মো. ইসমাইলের ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম ও চন্দনাইশ থানার বাদামতল গ্রামের মৃত মো. হাশেমের ছেলে মো. আলম।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান জানান, গত ২৫ ডিসেম্বর নগরের আতুরার ডিপোর বাসা থেকে এক সৌদি প্রবাসী পরিবার নিয়ে বাকলিয়া এলাকায় আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে যান। ৩০ ডিসেম্বর বাসায় এসে দেখেন তাদের স্বর্ণালঙ্কার, সৌদি রিয়ালসহ মূল্যবান জিনিসপত্র চুরি হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হলে তদন্তে নেমে আতুরার ডিপো এলাকা থেকে সাইফুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে নোয়াখালী থানার চরজব্বর এলাকা থেকে সাইফুদ্দিন ও রুমা আক্তারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে আলমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।