সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সহীদ সরোয়ার হোসেনকে মারধরের ঘটনায় অভিযুক্ত উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাজু আহম্মেদসহ জড়িতদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছেন এলাকাবাসী।

রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে রাখেন আ.লীগ নেতা সহীদের সমর্থক ও এলাকাবাসী।

অবরোধ ও বিক্ষোভ পালনের সময় বাজারের ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ রেখে অবরোধকারীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে।  পরে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে স্থানীয় প্রশাসনের আশ্বাসে দুপুর দুইটার পর অবরোধ তুলে নেন আন্দোলনকারীরা।

কাজিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পঞ্চনান্দ সরকার বলেন, দোষীদের গ্রেপ্তারের আশ্বাসের পর অবরোধকারীরা চলে গেছেন।’ 

কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হাসান সিদ্দিকী বলেন, ‘আমি নিজে রোববার দিনভর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সভায় ছিলাম। দুপুর আড়াইটার দিকে সিরাজগঞ্জ-কাজিপুর আঞ্চলিক সড়ক দিয়ে ফেরার পথে আইএসটি ইনস্টিটিউটের সামনে রাস্তায় কয়েকটি বিছিয়ে রাখা গাছ দেখে সরিয়ে দিয়েছি।’

এর আগে শনিবার আওয়ামী লীগ নেতা সহীদকে কুপিয়ে আহত করার পাশাপাশি বাম পা ভেঙে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় তার বড় বোন হামিদা খাতুন কাজিপুর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি রাজু আহম্মেদ ও তার চাচাত ভাই কালামসহ ১০ জনকে আসামি করে মামলা করেন।

আরও পড়ুন>> সিরাজগঞ্জে আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম