নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে পরাজিত মেয়র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, 'ভোটে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে নৌকার অলিখিত প্রধান এজেন্ট ছিলেন পুলিশ সুপার (এসপি) জায়েদুল আলম।' তিনি বলেন, 'আমার কর্মীদের বিনা অপরাধে জেলে নেওয়া হয়েছে, তাদের জামিন দেওয়া হচ্ছে না। আমাকে কারাগারে নিয়ে তাদের ছেড়ে দেন।'

মঙ্গলবার দুপুরে জেলা কারাগারের সামনে উপস্থিত সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। এ সময় কারাগারের বাইরে থাকা কারাবন্দিদের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে তাদের জামিনের ব্যাপারে আশ্বস্ত করেন।

তৈমূর বলেন, 'আমি আজ এখানে এসে জানতে পারলাম, আমার আরেক কর্মী প্রচারণার মিছিল শেষ করে বাড়ি ফিরে গ্রেপ্তার হয়েছিল। তার পরিবারকে মুখ না খুলতে ভয়ভীতি দেখানো হয়েছিল। এসপি আমার প্রত্যেক কর্মীর বাড়ি বাড়ি পুলিশ পাঠিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়েছে, তাদের গ্রেপ্তার করেছে, আমার বাড়ির কর্মচারীদেরও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি নির্বাচনে এমনভাবে কাজ করেছেন যে, এতে সন্দেহের কোনো অবকাশ নেই, তিনি নির্দেশিত হয়ে সরকারি প্রার্থীর এজেন্টের মতো কাজ করেছেন।'

তিনি বলেন, 'ইভিএম চুরি নয়, এটি ডাকাতি। ইভিএম ভোট ডাকাতির ডিজিটাল বাপ।'

তৈমূর আরও বলেন, 'অন্যায় করেছেন আপনারা, ভোট ডাকাতি করেছেন, আর প্রশাসনকে দিয়ে নির্বাচন করিয়েছেন। এই বিচারও একদিন হবে নারায়ণগঞ্জের মাটিতে।'