রেলওয়ের ‘রানিং স্টাফ’দের মাইলেজ ভাতা-সংক্রান্ত জটিলতা দীর্ঘদিনেও নিরসন হয়নি। বৃহস্পতিবার তারা বেতন পাচ্ছেন। কিন্তু তাতে কাঙ্ক্ষিত মাইলেজ ভাতা পাচ্ছেন না। ফলে বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রামে তাদের পূর্বঘোষিত বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

দাবি আদায়ে এই বৈঠক থেকে কর্মবিরতিসহ বিভিন্ন কর্মসূচিতে যাবেন বলে হুঁশিয়ার করে দিয়েছে রানিং স্টাফ কর্মচারী সমিতি।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান মুজিব বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মাইলেজ ভাতা নিয়ে যে জটিলতা তৈরি হয়েছে, সেটি নিরসনে আমাদের আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল। এমনকি রেলমন্ত্রীও আমাদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু বিষয়টি সুরাহা করা হয়নি। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বিষয়টি দেখব। নতুবা দাবি আদায়ে আমাদের কর্মবিরতিতে যাওয়া ছাড়া অন্য কোনো উপায় থাকবে না।

চলন্ত ট্রেনে যেসব কর্মী দায়িত্ব পালন করেন, রেলে তারা 'রানিং স্টাফ' হিসেবে পরিচিত। লোকোমাস্টার (চালক) গার্ড, টিটি, অ্যাটেনডেন্টসহ চলন্ত ট্রেনে কাজ করা কর্মীরাই হচ্ছেন ট্রেনের রানিং স্টাফ। বেতনের বাইরেও চলন্ত ট্রেনে যত মাইল দায়িত্ব পালন করেন এবং অতিরিক্ত সময় কাজ করেন তার জন্য নির্দিষ্ট হারে ভাতা পেয়ে থাকেন তারা। এই ভাতা রেলে 'মাইলেজ ভাতা' হিসেবে পরিচিত। দেড়শ বছর ধরে এই ভাতা পেয়ে এলেও অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনের কারণে কমে গেছে সেই ভাতা। তাই আগে যে রীতিতে মাইলেজ ভাতা দেওয়া হতো, সেভাবে দেওয়ার দাবিতে প্রায় এক বছর ধরে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন রানিং স্টাফরা।