গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে মারা যাওয়া ৯ জেব্রার চারটি নিজেদের মধ্যে মারামারি করে এবং পাঁচটি ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেল সোয়া ৪টার দিকে সংবাদ সম্মেলন করে এই তথ্য জানান পার্কের প্রকল্প পরিচালক জাহিদুল কবির।

এদিন জেব্রাগুলোর মৃত্যু নিয়ে পূর্বনির্ধারিত জরুরি বোর্ড মিটিং হয়। মিটিংয়ে মৃত জেব্রাগুলোর স্যাম্পল থেকে মৃত্যুর কারণ সংক্রান্ত প্রাপ্ত তথ্য উপাত্ত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সামনে উপস্থাপন করা হয়। পরে সংবাদ সম্মেলনে সেই চিকিৎসকদের করা মূল্যায়নের তথ্যই জানানো হয়।



এরে আগে পার্ক সূত্র জানিয়েছিল, বিভিন্ন সময় সাফারি পার্কের কোর সাফারির ভেতরে ওই ৯টি জেব্রার জন্ম হয়েছিল। কিন্তু হঠাৎ করে গত ২ জানুয়ারি ৬টি জেব্রার মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে কর্তৃপক্ষ। গতকাল সোমবার পর্যন্ত আরও ৩টির মৃত্যু হয়। অসুস্থ হয় আরও কয়েকটি জেব্রা। তবে চিকিৎসায় সেগুলো সুস্থও হয়। কিন্তু ৯টি জেব্রার মৃত্যুর কারণ কি তা তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেনি পার্ক কর্তৃপক্ষ।

হঠাৎ করে ২০ দিনের ব্যবধানে ৯ জেব্রার মৃত্যুর কারণ জানতে সেগুলোর দেহ থেকে স্যাম্পল নিয়ে পাঠানো হয় বিভিন্ন পরীক্ষাগারে। সোমবার পার্ক কর্তৃপক্ষ বলেছিল, পরীক্ষায় প্রাপ্ত তথ্য নিয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা বসবেন। তারপর মৃত্যুর কারণ জানানো হবে। এই জন্য মঙ্গলবার ডাকা হয়েছিল জরুরি বোর্ড সভা।  

বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে জেব্রার মৃত্যুর কারণ আঘাত ও ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ: পরিবেশ মন্ত্রী  

গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে ৯টি জেব্রার মৃত্যুর কারণ হিসেবে আঘাত, ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ, জেনেটিক কারণ এবং একটি ক্ষেত্রে ইনফ্লুয়েঞ্জাকে কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন প্রাণী বিশেষজ্ঞরা।

মঙ্গলবার পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের ‘২০২১-২২ অর্থবছরের এডিপিভুক্ত প্রকল্পসমূহের ওপর ডিসেম্বর ২০২১ পর্যন্ত বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা’ সভায় এ তথ্য জানিয়েছে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন। 

শাহাব উদ্দিন বলেন, ‘এত কম সময়ের ব্যবধানে  ৯টি জেব্রার মৃত্যু অত্যন্ত দুঃখজনক। ইতোমধ্যেই এর কারণ নির্ণয় করতে মৃতদেহের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিভিন্ন পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় নমুনা পরীক্ষা চলমান আছে।  প্রাথমিক ফলাফল বিশ্লেষণ করে আজ বিশেষজ্ঞগণ কয়েকটি ক্ষেত্রে আঘাত, ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ, জেনেটিক কারণ এবং একটি ক্ষেত্রে  ইনফ্লুয়েঞ্জাকে মৃত্যুর কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘জেব্রার মৃত্যুর যথাযথ কারণ নির্ণয়ে আরও সময়ের প্রয়োজন। প্রয়োজন হলে নমুনা বিদেশে পাঠানো হতে পারে।’

এর আগে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সাফারি পার্কে ৯টি জেব্রার মৃত্যু সংবাদ প্রচারিত হয়েছে বিভিন্ন গণমাধ্যমে।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে পরিকল্পনা কমিশনের এনইসি সম্মেলন কেন্দ্রে একনেক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জেব্রার মৃত্যুর কারণ জানতে চান। 

তিনি জেব্রাসহ সব ধরনের প্রাণীর সুরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছেন। 

পরিবেশ ও বনমন্ত্রী জানান, চলতি মাসে নয়টি জেব্রা মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করবে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়। তদন্তের মাধ্যমে এ সকল জেব্রার মৃত্যুর সঠিক কারণ এবং কারও দায়িত্বে অবহেলা ছিলো কিনা তা খুঁজে বের করা হবে। সরকার দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।