নওগাঁয় ১০০ কেজি ওজনের একটি কষ্টি পাথরের মূর্তি উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে জেলার সদর উপজেলার কোমাইগাড়ি গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য আব্দুস সালামের বাড়ির ছাদ থেকে মূর্তিটি উদ্ধার করে জেলার গোয়েন্দা শাখার পুলিশ ও এনএসআই সদস্যরা।

এই ঘটনায় মূর্তি পাচারের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। উদ্ধার করা মূর্তিটির আনুমানিক মূল্য ৫০ কোটি টাকা বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা। এই ঘটনায় বুধবার দুপুরে আটকদের সদর মডেল থানায় সোর্পদ করে তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছে ডিবি পুলিশ।

গ্রেপ্তাররা হলন- কোমাইগাড়ি গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য আব্দুস সালাম ছেলে মমিনুল ইসলাম মিলন (৩৮) ও একই গ্রামের মিরাজুল ইসলাম (২৮)।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি কে এম সামসুদ্দিন জানান, একটি চক্র মূল্যবান কষ্টি পাথরের মূর্তি নিজেদের হেফাজতে রেখে পাচারের চেষ্টা করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সাবেক ওই পুলিশ সদস্যের বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। পরে ওই বাড়ির ছাদের চিলেকোঠায় লুকিয়ে রাখা মূর্তিটি উদ্ধার করা হয়। এসময় মূর্তি পাচারের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ওই দুইজনকে আটককরা হয়। আটকদের বিরুদ্ধে সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সাবেক ওই পুলিশ সদস্য আব্দুস ছালাম বলেন, কিভাবে সেখানে মূর্তি এলো সে বিষয়ে আমি কিছুই জানি না।

নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি নজরুল ইসলাম জুয়েল বলেন, এই ঘটনায় ডিবি পুলিশ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে। আটকদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।