জামালপুরের সরিষাবাড়ী যমুনার শাখা নদীতে নিখোঁজের ১৮ ঘন্টা পর ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে । বৃহস্পতিবার সকালে নদীতে লাশটি ভেসে উঠলে স্থানীয়রা মরদেহটি উদ্ধার করে। পরে ঘটনাস্থলে এসে লাশের পরিচয় শনাক্ত করে পুলিশ।

মারা যাওয়া ওই ব্যবসায়ীর নাম  লতিফুর রহমান (৬৫)। তিনি সরিষাবাড়ী পৌরসভার ভুরারবাড়ি গ্রামের মৃত ইয়াকুব আলী মন্ডলের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, লতিফুর রহমান দীর্ঘদিন ধরে হাঁস-মুরগির ব্যবসা করেন। বুধবার উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের বয়ড়ায় ছিল সাপ্তাহিক হাট। ওই হাটে লতিফুর রহমান বেশ কিছু হাঁস-মুরগী নিয়ে বিক্রয়ের জন্য বয়ড়া বাজার ব্রীজের উপর বসেছিলেন। এ সময় হঠাৎ তার একটি হাঁস ছুটে গিয়ে লাফিয়ে ব্রীজের নীচে নদীতে চলে যায় । ছুঁটে যাওয়া হাঁসকে ধরতে তিনিও নদীতে লাফিয়ে পড়ে। তারপর তিনি আর ভেসে উঠেননি। তাকে উদ্ধারে হাটের লোকজন নদীতে নেমে খোঁজাখুজি করেও তার সন্ধান পাননি। খবর পেয়ে লতিফুরের পরিবারের লোকজন দফায় দফায় সন্ধান চালিয়েও ব্যর্থ হন। পরে সরিষাবাড়ী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সকে খবর দেন তারা। সরিষাবাড়ী ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় ডুবুরিরদল উদ্ধার অভিযান শুরু করে। কিন্তু তারাও লতিফুরকে উদ্ধারে ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান। পরে সকাল ৮টার দিকে ওই ব্রীজের নীচে তার লাশ ভেসে উঠে। স্থানীয়দের সহায়তায় পরিবারের সদস্যদের হাতে  লাশটি হস্তান্তর করে পুলিশ।

তারাকান্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আব্দুল লতিফ জানান, খবর পেয়ে জামালপুরের ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরির একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার অভিযান চালায়। পরদিন সকালে লাশ ভেসে উঠে এবং অভিযোগ না থাকায় লাশ পরিবারে হস্তান্তর করা হয়।

এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন, ঘটনাস্থলে চার সদস্য বিশিষ্ট উদ্ধারকারি ডুবুরিদল পাঠানো হয়। তারা ঘটনার দিন দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে ওই ব্যক্তিকে উদ্ধারে ব্যর্থ হন। পরের দিন উদ্ধার অভিযান শুরুর আগেই লাশ নদীর পানিতে ভেসে উঠে।