সাতক্ষীরার শ্যামনগরে বসবাসরত মুণ্ডা জনগোষ্ঠীর জন্য ঢাকা আন্তর্জাতিক মোবাইল চলচ্চিত্র উৎসব (ডিআইএমএফএফ)-এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো ছয়দিনব্যাপী ‘সিডিএসটি মোবাইল ফিল্মমেকিং ওয়ার্কশপ উইথ মুন্ডা কমিউনিটি’ শীর্ষক চলচ্চিত্র নির্মাণ কর্মশালা।

জলবায়ু পরিবর্তন ও মুণ্ডা জনগোষ্ঠীর দৈনন্দিন জীবনে এর নানা প্রভাবকে মূল উপজীব্য করে আয়োজন করা হয়েছে এই কর্মশালা। ২৩ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এ কর্মশালায় ১০ মুণ্ডা তরুণ-তরুণী অংশ নেন। প্রথমবারের মতো শ্যামনগরে বসবাসকারী মুণ্ডা জনগোষ্ঠীর জন্য নিজের গল্প নিজেই উপস্থাপনের এ কর্মশালা আয়োজন করা হয়।

কর্মশালার মাধ্যমে অংশগ্রহণকারীরা মোবাইল চলচ্চিত্রের ক্যানভাসে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রত্যক্ষ প্রভাব, বৈশ্বিক উষ্ণায়ণ এবং মুণ্ডা জনগোষ্ঠীর দৈনন্দিন জীবনে এর দীর্ঘমেয়াদী নানা প্রভাবকে কেন্দ্র করে তাদের নিজ নিজ চিন্তাধারার ভিত্তিতে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন। 

তাদের নির্মীত মোবাইল চলচ্চিত্রের মাধ্যমে উঠে আসে বাঘ-বিধবা, বাল্যবিবাহ, সংস্কৃতি ও ভাষা, জীবিকার অভাব ও এর প্রতিকার থেকে শুরু করে স্থানচ্যুতির জীবনযন্ত্রণার গল্প। 

২৮ জানুয়ারি বিকেলে কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে অন্যতম আয়োজক প্রতিষ্ঠান ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশের (ইউল্যাব) গণমাধ্যম শিক্ষণ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. জুড উইলিয়াম হেনিলো তার প্রেরিত বার্তায় অংশগ্রহণকারীদের শুভেচ্ছা জানান।

অন্যতম আয়োজক প্রতিষ্ঠান ডারহাম ইউনিভার্সিটির প্রকল্প গবেষক আনহেলো থিওক্যারিস তার পাঠানো বক্তব্যে কমিউনিটি ডিজিটাল স্টোরিটেলিং অ্যান্ড ডেল্টা ফিউচার্স ইন ইন্ডিয়া, বাংলাদেশ অ্যান্ড ভিয়েতনাম (সিডিএসটি) প্রকল্পটির নানা দিক নিয়ে আলোচনা করেন। 

অতিথিদের আলোচনাপর্ব শেষে অংশগ্রহণকারীদের নির্মীত চলচ্চিত্রগুলো প্রদর্শন করা হয়। 

সমাপনী এই অনুষ্ঠানে বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ভবতোষ কুমার মণ্ডল, ইনিশিয়েটিভ ফর কোস্টাল ডেভলোপমেন্ট (আইডিসি) এর প্রতিষ্ঠাতা আশিকুজ্জামান আশিক ও শ্যামনগরের আঞ্চলিক উন্নয়ন সংস্থা পিপলস রিসার্চ অন গ্রাসরুট ওনারশীপ অ্যান্ড ট্রেডিশনাল ইনিশিয়েটিভ (প্রগতি)-এর প্রতিষ্ঠাতা আশেক-ই-এলাহী উপস্থিত ছিলেন।

কমিউনিটি ডিজিটাল স্টোরিটেলিং অ্যান্ড ডেল্টা ফিউচার্স ইন ইন্ডিয়া, বাংলাদেশ অ্যান্ড ভিয়েতনাম (সিডিএসটি) শীর্ষক এই প্রকল্পটির যৌথ অর্থায়নে রয়েছে ইউকেআরআই জিসিআরএফ লিভিং ডেল্টাস হাব এবং ডারহাম ইউনিভার্সিটির ইনস্টিটিউট অব হ্যাজার্ড, রিস্ক অ্যান্ড রেজিলিয়েন্স (আইএইচআরআর)। প্রকল্পের অধীনে এই কর্মশালাটির যৌথ আয়োজনে ছিল ইউল্যাব এবং শ্যামনগরের আঞ্চলিক উন্নয়ন সংস্থা প্রগতি। ডিআইএমএফএফ-এর পক্ষ থেকে এর উপদেষ্ঠা ড. আব্দুল কাবিল খান ও নির্বাহী উপদেষ্টা সৈয়দা সাদিয়া মেহজাবিন কর্মশালাটি পরিচালনা করেন। আয়োজনটির সমন্বয়ে ইউল্যাব এর পক্ষ থেকে ছিলেন সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ আব্দুল কাদের, জ্যেষ্ঠ প্রভাষক মুহাম্মদ আমিনুজ্জামান এবং প্রগতির পক্ষ থেকে ছিলেন আশেক-ই-এলাহী।