পিরোজপুরের নাজিরপুরে এক তরুণীকে (১৮) সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে ওইদিনই ওই তরুণী বাদী হয়ে নাজিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

গ্রেপ্তার তিনজন হলেন, উপজেলার শাঁখারীকাঠী ইউনিয়নের বাঘাজোড়া গ্রামের হায়দার গাজীর ছেলে মো. কবির হোসেন গাজী (২৩), বাশার শেখের ছেলে রাব্বি শেখ (১৯) ও শহিদুল গাজীর ছেলে হৃদয় গাজী (১৬)। ধর্ষণের স্বীকার ওই তরুণীর বাড়িও একই এলাকায়।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে বাড়ির পাশের একটি বাড়িতে বিয়ে খেতে যান ওই তরুণী। এসময় তাকে একা পেয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন অভিযুক্তরা।

নাজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. মাহিদুল ইসলাম বলেন, সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী বাদী হয়ে বৃহস্পবিার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ পেয়ে স্থানীয় তিন যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়।

ওই তরুণীকে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।