দিনাজপুরে আদালত চত্বর থেকে হাতকড়া পরা অবস্থায় এক আসামি পালিয়েছেন। কিন্তু কাঠগড়ায় নাম ডাকার আগ পর্যন্ত জানত না কেউ। এতে ঘটনাটি নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। তার নাম লুৎফর রহমান (৩৫)। তিনি সদর উপজেলার আউলিয়াপুর ইউনিয়নের শিকদারহাট এলাকার মোতাহার হোসেনের ছেলে। 

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় এ ঘটনা ঘটে। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ধার্য তারিখে হাজিরা দেওয়ার জন্য জেলা কারাগার থেকে পুলিশ প্রিজন ভ্যানে করে লুৎফরসহ ৪৭ আসামিকে আদালতে নেওয়া হয়। তাদের বুঝেও নিয়েছিল আদালত পুলিশ। বিচারিক কার্যক্রম শুরু হলে এজলাসে ডাক পড়ায় দুই পুলিশ সদস্য লুৎফরসহ তিনজনকে সদর আমলি আদালত-১-এ নিয়ে যাচ্ছিলেন। পথে একজন নিখোঁজ হলেও বিষয়টি চেপে রাখা হয়। কাঠগড়ায় হাজির আসামিদের নাম ডাকার সময় লুৎফরকে অনুপস্থিত পাওয়া যায়। এরপর শুরু হয় খোঁজাখুঁজি। সন্ধ্যা পর্যন্ত তার সন্ধান পায়নি পুলিশ।

২০২০ সালের ২৮ মে আউলিয়াপুর এলাকায় আরিফুল ইসলাম হত্যা মামলায় ওই বছরের ৩১ অক্টোবর গ্রেপ্তার হন লুৎফরসহ পাঁচজন। সেই থেকে তারা কারাগারে ছিলেন।

পরিদর্শক মনিরুজ্জামান জানান, কাঠগড়ায় লুৎফরকে পাওয়া না গেলে তিনি অন্য আদালতে চলে গেছেন বলে ধারণা করা হয়। কিন্তু দীর্ঘ সময় খোঁজাখুঁজির পরও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। তাকে গ্রেপ্তারে সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে।