কুমিল্লার তিতাসে চোর সন্দেহে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার বিকেলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত মাহবুবুর রহমান ওরফে টারজান (২৫) উপজেলার জিয়ারকান্দি গ্রামের শাহ আলম ভূঁইয়ার ছেলে।

মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে ওই গ্রামের পুরাতন সরকারবাড়ি মসজিদ-সংলগ্ন আজারুলের মুদির দোকানে চুরির ঘটনাটি ঘটে। এই ঘটনায় এলাকাবাসী তাকে গণপিটুনি দেয়। এতে তিনি আহত হন। পরে তাকে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

জানা গেছে, উপজেলার জিয়ারকান্দি গ্রামের আজারুল সরকারের মুদি দোকানের চালের টিন কেটে মঙ্গলবার রাতে ভেতরে প্রবেশ করে টারজান। ওই দোকানের পাশের বাড়ির তৌফিকুল ইসলাম বিষয়টি দেখতে পেয়ে ফোনে দোকানি আজারুলকে বিষয়টি জানান। তাৎক্ষণিক আজারুলসহ কয়েকজন ছুটে এসে দোকানের সাটার খুলে প্রবেশ করে দেখেন টারজান শুয়ে আছে।

এ সময় হৈ চৈ শুরু হলে এলাকাবাসী এসে টার্জানকে গণপিটুনি দেয়। গুরুতর আহত টারজানকে তার পরিচিত কয়েকজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার বিকেলে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার বিষয়ে জানতে বুধবার সন্ধ্যায় দোকানি আজহারুল সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

জিয়াকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী আশরাফ জানান, হাসপাতাল ও থানা থেকে আমাকে ফোন করেছিল। আমি দুইজন ইউপি সদস্যকে পাঠিয়েছিলাম সেখানে। এ বিষয়ে আমি বিস্তারিত জানি না।

তিতাস থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুধীন চন্দ্র দাস বলেন, বুধবার বিকেলে হাসপাতাল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। আমরা এ ঘটনায় নিহতের পরিবার থেকে এখনো কোনো অভিযোগ পাইনি।