চট্টগ্রাম নগরের কোতোয়ালি থানার পাথরঘাটা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ২ কোটি ৬৫ লাখ ৬ হাজার ৯১৩ টাকা আত্মসাৎ মামলায় জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে দুইজনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। এরা হলেন- বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি মাহমুদুল হক পারভেজ ও প্রধান শিক্ষক (সাময়িক বরখাস্ত) শফিকুর রহমান সিকদার।

বুধবার চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করলে শুনানি শেষে আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী তপন কুমার দাশ জানান, টাকা আত্মসাৎ মামলায় মাহমুদুল হক পারভেজ ও শফিকুর রহমানকে হাইকোর্ট ছয় সপ্তাহের জামিন দিয়েছিলেন। একই সঙ্গে ছয় সপ্তাহের মধ্যে তাদেরকে চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করার আদেশও দিয়েছিলেন। বুধবার তারা আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করলে আদালত শুনানি শেষে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। মাহমুদুল হক পারভেজ পাথরঘাটা এলাকার নজু মিয়া লেনের মরহুম হারুন অর রশীদের ছেলে এবং শফিকুর রহমান চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার পুরানগর এলাকার সাইদুর রহমান সিকদারের ছেলে।

অর্থ আত্মসাতের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড গঠিত তদন্ত কমিটি ২০২০ সালের ১৬ মার্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের দুর্নীতি, জালিয়াতি, বিশ্বাসভঙ্গ ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ প্রমাণ পাওয়ার তথ্য উল্লেখ করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়। পরে ২১ জুন বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদ বিলুপ্ত করা হয়। পরবর্তী সময়ে গঠিত অ্যাডহক কমিটি ২০২১ সালের ১১ জানুয়ারি প্রধান শিক্ষক শফিকুর রহমান সিকদারকে সাময়িক বরখাস্ত ও তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করে। একই বছর ১০ মার্চ বিভাগীয় মামলায় গঠিত তিন সদস্যের কমিটি শফিকুর রহমান সিকদার ও মাহমুদুল হক পারভেজের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের তহবিল থেকে ২ কোটি ৬৫ লাখ ৬ হাজার ৯১৩ টাকা আত্মসাতের সুনির্দিষ্ট প্রমাণ পায়।