কুমিল্লায় রেললাইনে তিন স্কুলছাত্রী নিহতের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই এবার বাসচাপায় প্রাণ হারালেন মেধাবী দুই কলেজছাত্র। বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের দেবিদ্বারের বেগমাবাদ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত দুই কলেজছাত্র দেবিদ্বারের জাফরগঞ্জ মীর আবদুল গফুর ডিগ্রি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন। এদের মধ্যে রবিউল ইসলাম (১৭) দেবিদ্বার পৌর এলাকার চেয়ারম্যান বাড়ির মো. জয়দল হোসেনের ছেলে এবং সজিবুল ইসলাম সজিব (১৭) মুরাদনগরের পরমতলা গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী আবুল কাশেম মিয়ার ছেলে। তিনি দেবিদ্বার পৌর এলাকার বড় আলমপুরে মামার বাড়িতে থেকে পড়ালেখা করতেন।

স্থানীয় ও হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কলেজে ক্লাস শেষে রবিউল ও তার বন্ধু সজিব মোটরসাইকেলে দেবিদ্বারের বাড়িতে ফিরছিলেন। বেগমাবাদে পৌঁছলে কুমিল্লাগামী সুগন্ধা পরিবহনের একটি বাস মোটরসাইকেলটিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই রবিউলের মৃত্যু হয়। উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায় সজিব।

এদিকে খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন ও কলেজের ছাত্ররা এসে সড়ক অবরোধ করে গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় সড়কে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

গাড়ির যাত্রী আবুল কাসেম ও রমিজ উদ্দিন জানান, ঘটনার পর গাড়ির চালক ও হেলপার পালিয়ে যান। আশংকাজনক অবস্থায় আহত একজনকে উদ্ধার করে মেডিকেলে পাঠানো হয়।

মীর আবদুল গফুর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ সফিকুর রহমান বাবুল বলেন, 'বাসের বেপরোয়া গতির কারণে অকালেই আমার দুই ছাত্রকে জীবন দিতে হলো।’

মিরপুর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মাসুদ আলম বলেন, বাসচাপায় ঘটনাস্থলেই একজন এবং হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরেকজনের মৃত্যু হয়েছে। আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া বাসটি উদ্ধার করে ফাঁড়িতে আনা হয়েছে।