লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে ৮ হাজার ৬৪৪ লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করে গুদাম সিলগালা করে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা মনিরা খাতুন। রোববার বিকেলে পৌর শহরস্থ জোড়কবর-সংলগ্ন মা ভিলা নামের একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে অভিযান চালিয়ে গুদামে থাকা তেল জব্দ করা হয়। পরে গুদাম লগালা করে দেন তিনি।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খরব পেয়ে ম্যাজিস্ট্রেট মনিরা খাতুন ইউনিকর্ন ডিস্ট্রিবিউশন লিমিটেড নামের একটি কোম্পানি রূপচাঁদা তেলের স্টিকার ব্যবহার করে বিপুল পরিমাণ সয়াবিন তেল গুদামজাত করে রাখে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মনিরা খাতুন পরিত্যক্ত ওই বাড়িতে উপস্থিত হয়ে কোম্পানির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও তেল গুদামজাতকরণের বিষয়টি জানতে চান। পরে ম্যানেজার হেলাল উদ্দিন বৈধ কাগজপত্র ও ক্রয়-বিক্রয়ের কোনো পরিসংখ্যান উপস্থাপন করতে না পারায় তাৎক্ষণিক ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে তেলের গুদাম সিলগালা করে দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা ডিএসবি পুলিশ অফিসার মো. আবুল কালাম আজাদ ও রামগঞ্জ থানায় কর্মরত ডিএসবি তাজুল ইসলাম, স্থানীয় কাউন্সিলর মেহেদী হাসান সুমন প্রমুখ।

মা ভিলার মালিক মৃত রাজ্জাক মিয়ার ভাগনে মো. সায়মন হোসেন জানান, ফেব্রুয়ারি মাসে ১ম সাপ্তাহে চট্টগ্রামের এক ব্যবসায়ীকে প্রতি মাসে ৭ হাজার ৫০০ টাকা হারে আমি বাসাভাড়া দিয়েছি। কিন্তু তেলের গুদামের বিষয়ে আমি কিছু জানি না।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মনিরা খাতুন বলেন, কোম্পানির সাইনবোর্ড না থাকা ও সঠিক কোনো প্রয়োজনীয় প্রমাণপত্র উপস্থাপন করতে না পারায় ম্যানেজার পরিচয়দানকারী হেলাল উদ্দিনকে ভোক্তা অধিকার আইনে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তেলের গুদাম সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। তদন্ত শেষে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।