স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেছেন, ‘দেশে ধর্মীয় কোনো বিভেদ নেই। কিছু অসাধু মানুষ আছে রাজনৈতিকভাবে ধর্মকে বিভাজন করে। বিএনপি যখন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায়, তখন সারের জন্য কৃষকরা বিক্ষোভ করেছেন। বিএনপি সরকার নিরপরাধ ১৭ জন কৃষককে গুলি করে হত্যা করেছিল। বর্তমানে দেশ উন্নয়নের পথে এগুচ্ছে। এ অভূত উন্নয়নকে বাধা প্রদানের জন্য বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।’

শনিবার সকালে কুমিল্লার লাকসামে উপসংঘরাজ দর্শনবারিধি অধ্যাপক ধর্মরক্ষিত মহাথের এর জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার চাঁনগাঁও কোয়াঁর ইন্দ্রধাম বৌদ্ধ বিহারে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে একুশে পদকপ্রাপ্ত বাংলাদেশি বৌদ্ধদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় গুরু মহামান্য সংঘরাজ শাসন শোভন ড, জ্ঞানশ্রী মহাথের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য, সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ, জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ, লাকসাম উপজেলা চেয়ারম্যান এড ইউনুস ভূঁইয়া, পৌর মেয়র অধ্যাপক আবুল খায়ের, ভাইস চেয়ারম্যান মহব্বত আলীসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দরা।

পরে আলংনৃত্য, অনিত্য ও স্মৃতিচারণ সভা অনুষ্টিত হয়। অন্ত্যোষ্টিক্রিয়ার মধ্য দিয়ে ধর্মগুরুকে চির বিদায় দিতে দেশের বিভিন্ন জেলার বৌদ্ধধর্মালম্বিরা অংশ নেন।