গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় কবি সুকান্ত ভট্টাচার্যের পৈতৃক ভিটা ঘুরে দেখেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি।

শনিবার দুপুরে ডা. দিপু মনি উপজেলার আমতলী ইউনিয়নের উনশিয়া গ্রামে কবি সুকান্তের পৈতৃক ভিটা ঘুরে দেখেন। এসময় তিনি কবি সুকান্ত লাইব্রেরি ও মুজিব কর্ণারে কিছু সময় কাটান।

এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌস ওয়াহিদসহ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্তকর্তারা শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন।

কবি সুকান্ত ভট্টাচার্যের পৈতৃক ভিটায় এসে পৌঁছালে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনিকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান কোটালীপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌস ওয়াহিদ

এর আগে ডা. দিপু মনি ঢাকা থেকে বিমানে বরিশাল এসে পৌঁছান। বরিশাল থেকে টুঙ্গিপাড়ায় যাওয়ার পথে কবি সুকান্তের পৈতৃক ভিটা ঘুরে দেখেন তিনি।

এদিকে কবি সুকান্তের পৈত্রিক ভিটায় সময় কাটানোর বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকেও জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

ফেসবুকে নিজের ভেরিফাইড আইডি থেকে দীপু মনি লিখেন, গন্তব্য পিতৃভূমি টুঙ্গিপাড়া। বরিশাল থেকে টুঙ্গিপাড়া যাওয়ার পথে কিছুক্ষণের জন্য দাঁড়ালাম কবি সুকান্তের পৈতৃক ভিটায়। মূল ভিটির কোন চিহ্ন নেই, শুধু সে জমির উপর নির্মিত হয়েছে একটি পাঠাগার। সামনে আছে কবির একটি ভাস্কর্য। পাঠাগারের ভেতরে কবির বাড়ি থেকে সংগৃহীত কিছু দ্রব্য দেখার জন্য সাজিয়ে রাখা হয়েছে। জানতে পারলাম সঙ্গীত জগতের নক্ষত্র তারাপদ চক্রবর্তীর বাড়িটিও আর নেই। সে জায়গায় এখন কোটালীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়।

১৯২৬ সালের ১৫ আগষ্ট কবি সুকান্ত ভট্টাচার্য কলকাতার কালীঘাটের মহিমা হালদার স্ট্রিটে মামা বাড়িতে জন্ম গ্রহণ করেন। তার বাবার নাম নিবারন ভট্টাচার্য, মাতা সুনীতি দেবী। ১৯৪৭ সালের ১৩ মে মাত্র ২১ বছর বয়সে মৃত্যু বরণ করেন সুকান্ত ভট্টাচার্য।