কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাহাড়ে আবারও আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। শনিবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে ক্যাম্পাসের কেন্দ্রীয় মসজিদের পশ্চিম পাশের পাহাড়ে এ ঘটনা ঘটে। মসজিদ ও কেন্দ্রীয় খেলার মাঠের মধ্যবর্তী লালন পাহাড় নামে পরিচিত পাহাড়টির প্রায় অর্ধেকটা পুড়ে গেছে।

আধঘন্টার চেষ্টায় ক্যাম্পাসের কয়েকজন আনসার সদস্য ও শিক্ষার্থীরা মিলে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে কে বা কারা আগুন লাগিয়েছে এ বিষয়ে বলতে পারেননি আশপাশের কেউ।

আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেওয়া আনসারের এসিস্ট্যান্ট কমান্ডার বাচ্চু মিয়া বলেন, 'আমি খবর পেয়ে ছুটে এসে দেখি পাহাড়ে দাউদাউ করে আগুন জ্বলছে। পরে আরও কয়েকজন আনসার ও শিক্ষার্থীদের সহযোগিতায় আগুন নেভাতে পেরেছি।'

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ক্যাম্পাসের এসব পাহাড়ে প্রশাসনের সুষ্ঠু তদারকির অভাবে বহিরাগতরা নিয়মিত যাতায়াত করে। ক্যাম্পাসের অনেকেই মনে করছেন আগুন লাগার পেছনে তাদের সংশ্লিষ্টতা থাকতে পারে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন বলেন, কে বা কারা আগুন লাগিয়েছে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।